• মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:১৩ অপরাহ্ন |

সৈয়দপুরে গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে গৃহকর্তা গ্রেফতার

সিসি নিউজ, ২৫ জুলাই ।। নীলফামারীর সৈয়দপুরে এক গৃহকর্মীকে বিয়ের মিথ্যে প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ ও কৌশলে ওষুধ খাইয়ে গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগে মামলা হয়েছে। গত বুধবার রাতে ধর্ষণের শিকার গৃহকর্মী নিজে বাদী হয়ে ধর্ষক গৃহকর্তা আরমান ওরফে ভান্ডারীর বিরুদ্ধে সৈয়দপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। সৈয়দপুর থানা পুলিশ বুধবার রাতই ধর্ষক আরমান ওরফে ভান্ডারীকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃত মো. আরমান ওরফে ভান্ডারী (৩৮) শহরের বাঁশবাড়ী হানিফ মোড় এলাকার সাগিরের ছেলে।
থানায় দায়ের মামলার আরজিতে উল্লেখ করা হয়েছে, শহরের বাঁশবাড়ী ক্যাম্পের কামরুদ্দিন ওরফে চেয়ারম্যানের মেয়ে দুলালী আক্তার ওরফে দুলালী (৩২)। তাঁর স্বামী শহরের ইসলামবাগ চিনি মসজিদ এলাকার মৃত. আলী হোসেনের ছেলে মো.আরমান হোসাইন আক্তারী। গৃহবধূ দুলালী স্বামীর খারাপ আচরণে অতিষ্ঠ হয়ে ৬/৭ মাস আগে বাবার বাড়িতে চলে আসেন। এরপর তিনি শহরের সাহেবপাড়া তেঁতুলগাছ মোড় এলাকার জনৈক আশরাফুল ইসলামের বাড়ি ভাড়ায় নিয়ে বসবাস শুরু করেন। পরবর্তীতে শহরের বাঁশবাড়ী হানিফ মোড় এলাকার আরমান ওরফে ভান্ডারীর স্ত্রী অনুপস্থিতিতে তাঁর বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ নেয়। সেখানে কাজ করার সুবাধে গৃহকর্তা আরমান ভান্ডারী গৃহকর্মীর দুলালীর সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তোলে। এর এক পর্যায়ে আরমান ওরফে ভান্ডারী গৃহকর্মী দুলালীকে বিয়ের মিথ্যে প্রলোভন দেখিয়ে তাঁর বাড়িতে একাধিকবার দৈহিক মেলামেশা করে। সর্বশেষ গেল ১৪ মে আরমান ওরফে ভান্ডারী তাকে ধর্ষণ করেন। এ অবস্থায় গৃহবধূ দুলালী গর্ভবর্তী হয়ে পড়লে বিষয়টি আরমান ভান্ডারীকে জানায়। তখন আরমান দুলালীকে বিয়ে করারসহ সবকিছু ঠিক করে দেওয়ার আশ্বাস দেয়। এরপর গত ২২ জুলাই দুলালীকে একটি ওষুধ খেতে দিয়ে আরমান ভান্ডারী বলে এটি খাও তোমার শরীর ঠিক হয়ে যাবে। আরমানের কথা সরল মনে বিশ্বাস করে দুলালী ওই ওষুধ সেবন করে এবং তাঁর বাড়িতে স্বাভাবিকভাবে কাজকর্মও করেন। এরপর ওই দিন বিকেলে সৈয়দপুর রেলওয়ের আইডব্লিউ অফিসের পেছনে অবস্থানকালে দুলালী তলপেটে প্রচন্ড ব্যথায় সেখানে অজ্ঞান হয়ে পড়েন। পরবর্তীতে খবর পেয়ে খানা পুলিশ তাকে (দুলালী) সেখান থেকে উদ্ধার করে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে তাঁর অবস্থান অবনতি ঘটলে উন্নত চিকিৎসার জন্য দুলালীকে প্রথমে নীলফামারী সদর আধুনিক হাসপাতাল এবং পরে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপতালে স্থানান্তর করা হয়। রংপুর মেডিক্যাল কলেজ থেকে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে ফিরে দুলালী আক্তার তাকে বিয়ের মিথ্যে প্রলোভন দেখিয়ে র্ধষণ ও ওষুধ খাইয়ে গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ এনে বুধবার (২৪ জুলাই) আরমান ভান্ডারীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন।
সৈয়দপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শাহজাহান পাশা ধর্ষক গৃহকর্তা আরমান ভান্ডারীকে গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ