২২ জনের নগ্ন ভিডিও উদ্ধার: স্বামী-স্ত্রী গ্রেফতার

 
 

সিসি ডেস্ক, ২৮ জুলাই ।। কুমিল্লায় র‌্যাব ১১ সিপিসি-২ এর সফল অভিযানে অপহরণ, ব্ল্যাকমেইল, অস্ত্র, ইয়াবা, দেহ ব্যবসা থেকে শুরু করে বহু অপরাধের মূল হোতা স্বামী-স্ত্রী দুজনকে আটক করা হয়েছে। পরে তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা পেনড্রাইভ ও মোবাইল মেমোরিকার্ড থেকে উদ্ধার হওয়া কুমিল্লার বিভিন্ন এলাকার নারী পুরষ সহ অন্তত ২০/২২ জন ভিকটিমের ভিডিও উদ্ধার হয়।

যেখানে নানা ভাবে নারী, অ’স্ত্র ও মাদক দিয়ে ফাঁসিয়ে জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী, চাকরিজীবী, রাজনৈতিক নেতা, শিক্ষার্থী ও একাধিক প্রবাসীও রয়েছেন। নগরীর হাউজিং এস্টেট এলাকার ৩টি ভাড়া বাসায় চলতো এসব অপকর্ম। আর এর সাথে জড়িতদের কয়কজনের পরিচয় পেয়ে র‌্যাব সহ সাংবাদিকদের ও ভাবিয়ে তুলেছে। সংঘবদ্ধ এই চক্রের সাথে জড়িত নেতা, কথিত সাংবাদিক, নকল প্রশাসনের লোক ও সরকারি চাকরিজীবী সহ ৮/৯ জন।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণের ধনাইতরী গ্রামের মৃত হাকিমের ছেলে চইব্রাহিম নামের একজনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে নগরীর হাউজিং এর ব্লক এ সেকশন-৪ প্লট নং ১ কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান মেজর (অব.) আব্দুল হাফিজের ৩য় তলার বাসা থেকে স্বামী-স্ত্রী ধনাইতরীর ইউসুফের ছেলে মাহফুজ ও মাহফুজের স্ত্রী রিনাকে আটক করে র‌্যাব। আটকের খবর পেয়ে ভুক্তভোগী অনেকেই র‌্যাবের অফিসে এসে অভিযোগ করতে দেখা গেছে।

তাজুল নামে এক ভুক্তভোগী অভিযোগ করে বলেন, গত ডিসেম্বরে রাস্তা থেকে ডেকে বাসায় ঢুকিয়ে আমাকে উলঙ্গ করে শারিরীক নির্যাতন করে ১ লাখ টাকা আদায় করে, এখনো নানা ভাবে হুমকি দামকি দিচ্ছে, তাদের আটকের খবর পেয়ে আসছি আমিও তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করব। তাদের কঠিন শা’স্তি দাবি করতে দেখা যায় অনেকের মুখেই। লোকলজ্জার ভয়ে অনেকেই মুখ না খুল্লেও আ’টকের খবরে অনেককেই মুখ খুলতে দেখা গেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার প্রনব কুমার জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে মাহফুজ ও তার স্ত্রীকে আটক করা হয়েছে। তারা সমাজের ধনাঢ্য ব্যাবসায়ী, চাকরিজীবী দের টার্গেট করে মেয়ে ও ইয়াবা দিয়ে ফাঁ’সিয়ে উলঙ্গ করে ভিডিও ধারণ করে টাকা আদায় করত।

টাকা না দিলে ব্ল্যাকমেইল করত, ছবি ফেইসবুক সহ সামাজিক মাধ্যমে ছেড়ে দেবার হুমকি দিত। এ সময় আসামিদের কাছ থেকে পেনড্রাইভসহ কিছু ডকুমেন্ট উদ্ধার করা হয়েছে। আসামি মাহফুজের বিরুদ্ধে অস্ত্র মাদকসহ একাধিক মামলায় ওয়ারেন্ট রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

Print Friendly, PDF & Email