সৈয়দপুরে অধ্যক্ষ ও সভাপতির বিরুদ্ধে ছাত্রছাত্রীদের মানববন্ধন

 
 

সিসি নিউজ, ৩১ জুলাই ।। নীলফামারীর সৈয়দপুরে আজ বুধবার সাতপাই উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের আর্থিক দূর্নীতি, দাতা সদস্যের কাগজ জাল করে বোর্ড থেকে সভাপতি অুনমোদন নেয়াসহ বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে সকাল ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত মানববন্ধন করেছে ছাত্রছাত্রী, কমিটির সদস্য ও শিক্ষকেরা।
মানববন্ধনে অংশগ্রহনকারীরা জানান, গত ৮ জুলাই ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে ৯ জনকে বিজয়ী ঘোষনা করেন। এতে এডহক কমিটির সভাপতি রেজা চৌধুরী নিজেকে দাতা হিসেবে দাবী করলেও তা বাতিল হয়ে যায়। এ কারনে তিনি নির্বাচনে অযোগ্য বিবেচিত হন। বিজয়ীদের মধ্য থেকে একজন সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার কথা। কিন্তু তা না করে এডহক কমিটির সভাপতি রেজাউল করিম চৌধুরী, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ লতিফুর রহমানের সাথে যোগসাজোসে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে গত ১১ জুলাই নিজেকে দাতা সদস্য দেখিয়ে সভাপতি হিসেবে দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড থেকে ১০ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি অনুমোদন গ্রহন করে। ঘটনাটি জানাজানি হলে নব নির্বাচিত সদস্য, শিক্ষক, ও ছাত্র ছাত্রীরা বিক্ষোভে ফেটে পরে। এর ফলে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ লতিফুর রহমান কলেজে আসা বন্ধ করে দেয়। এর ফলে পাঠদানে বিঘ্ন ঘটছে। বিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার এবং দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবীতে মানববন্ধন করে।
ম্যানেজিং কমিটির নব নির্বাচিত সদস্য মো: রবিউল ফরহাদ জানায়, রেজউল করিম চৌধুরী এডহক কমিটির সভাপতি থাকা কালিন ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ লতিফুর রহমান মিলে কলেজের পুরাতন ভবনের বাঁশ টিনসহ জানালা দরজা বিক্রি করে দেয়। এছাড়াও ১১ জুলাই অবৈধভাবে কমিটি অনুমোদন নেয়ার পর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষসহ ফান্ডের ১ লাখ ৫ হাজার টাকা তসরুপ করেন। অনতিবিলম্বে এই কমিটি বাতিলের দাবি জানান তিনি।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রেহেনা ইয়াসমিন বলেন, বিধি মোতাবেক সাতপাই উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। দাতা পদে কাউকে পাওয়া যায়নি। বোর্ড কিভাবে রেজা চৌধুরীকে অনমোদন দিয়েছে তা দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড ভাল বলতে পারবে।

Print Friendly, PDF & Email