• শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ১২:১০ পূর্বাহ্ন |

ডেঙ্গু প্রতিরোধে ৫০ হাজার পুলিশ সদস্য

সিসি ডেস্ক, ৪ আগষ্ট ।। ডেঙ্গুর প্রকোপ থেকে নগরবাসীর সুরক্ষায় রাজধানীর পাড়া-মহল্লায় পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালাতে সচেতনতা কর্মসূচি গ্রহণে ৫০ হাজার পুলিশ সদস্য কাজ করবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া।

শনিবার রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইনে ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান নিয়ে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স-এ সাংবাদিকদের ব্রিফকালে একথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, আমরা ডেঙ্গু প্রতিরোধের জন্য শনিবার সকাল ৭টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল অফিস যেমন-ডিসি অফিস, থানা, ফাঁড়ি, কন্ট্রোলরুম, মেস ও ডাইনিং ইত্যাদি স্থানে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালিয়েছি। এই পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রমে ডিএমপির বিভিন্ন পর্যায়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ অংশ নেন।

তিনি বলেন, আমরা জানি ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়েছে এডিস মশার কারণে। এই এডিস মশা স্বচ্ছ ও বদ্ধ পানিতে, আবর্জনা, ফলের খোসা ও ফুলের টবে জমে থাকা পানিতে বংশ বিস্তার করে। আমরা এডিস মশা নিধনের ঔষুধ ও ফগার মেশিন কিনেছি। এই মেশিনের মাধ্যমে আমরা ঔষুধ ছিটিয়ে এডিস মশার লার্ভাকে ধ্বংস করবো।

মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, এডিস মশার লার্ভা যদি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ধ্বংস করতে পারি তাহলে আর ডেঙ্গু ছড়াবে না। ইতোমধ্যে পুরাতন গাড়ি, বিভিন্ন সরঞ্জামাদি, গাড়ির টায়ার-টিউব যেখানে রয়েছে তা পরিস্কার করা শুরু হয়েছে এবং যাতে পানি জমা না হয় সে উদ্যোগ আমরা নিয়েছি।

কমিশনার বলেন, শুধু সরকার বা স্বাস্থ্য বিভাগ এই ডেঙ্গু প্রতিরোধ করতে পারবে না। ডেঙ্গু প্রতিরোধে নগরবাসী ও জনগণকে এগিয়ে আসতে হবে। যার যার আঙিনা তাকে পরিস্কার করতে হবে। এটা আমাদের নাগরিক দায়িত্ব। ডেঙ্গু শুধু আমাদের দেশেই নয়, অন্যান্য দেশেও ছড়িয়ে পড়েছে।

তিনি বলেন, পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে প্রায় ৬০ থেকে ৭০ লাখ মানুষ গ্রামে যাবে। এখনই যদি ঢাকার এডিস মশা নিধন করতে না পারি তাহলে ডেঙ্গু গ্রাম-গঞ্জে ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা আছে।

ডিএমপির এই শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, আমরা শুধু ডিএমপির ইউনিটগুলো পরিস্কার করছি না, ডিএমপির বিভিন্ন থানার ৩০২টি বিটের পাড়া মহল্লায় সচেতনতা কার্যক্রম গ্রহণে সংশ্লিষ্ট বিট কর্মকর্তা, অফিসার ইনচার্জ ও ডিসিদের নির্দেশ দিয়েছি।

এ ছাড়াও সিটি কাউন্সিলর ও কমিউনিটি পুলিশ সাথে নিয়ে মহল্লাবাসীদের সচেতন করছি। যাতে যার যার এলাকায় স্বচ্ছ পানি জমা রয়েছে যেখানে এডিস মশার প্রজনন হতে পারে সেসব এলাকা পরিস্কার করে ঔষধ ছিটানোর জন্য বলা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা যদি পুরো শহরকে এভাবে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করি তাহলে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করা অনেক সহজ হবে। ডেঙ্গু প্রতিরোধে নগরবাসীকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ