সৈয়দপুরে গাছে কলেজছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ

 
 

সিসি নিউজ, ১২ আগষ্ট ।। নীলফামারীর সৈয়দপুরে এক কলেজছাত্রের গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় রাকিবুল ইসলাম রকি (১৯) এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ সোমবার সকালে উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের সিপাইগঞ্জ বাজারের দক্ষিণে পানি উন্নয়ন বোর্ডের সেচ নালার পাড়ের একটি আকাশমনি গাছ থেকে ওই মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার দিন সোমবার সকালে উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের সিপাইগঞ্জ বাজারসংলগ্ন উল্লিখিত একটি গাছে এক কিশোরের মরদেহ ঝুলতে দেখেন এলাকাবাসী। পরে ঘটনাটি সৈয়দপুর থানা পুলিশকে অবগত করা হয়।

সৈয়দপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. বাপ্পী ঘটনাস্থলে পৌঁছে সুরতহার প্রতিবেদন তৈরি করে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। পরে খবর পেয়ে নিহতের বড় ভাই কামারুল ইসলাম রাশেদ সৈয়দপুর থানায় গিয়ে মরদেহটি তার ছোট ভাই রাকিবুল ইসলাম রকির বলে শনাক্ত করেন।

নিহত রাকিবুল ইসলাম রকি সৈয়দপুর সানফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এবারে উচ্চমাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষায় পাস করেছে। তাদের গ্রামের বাড়ি নীলফামারী সদরের চাপড়া সরমজানী ইউনিয়নের বড়ুয়া পাটোয়ারাীপাড়া এবং তার বাবা নাম মো. আফজাল হোসেন। সে পরিবারের অন্যান্যদের সঙ্গে সৈয়দপুর শহরের কয়ানিজপাড়ায় থাকত। ছয় ভাইয়ের মধ্যে সকলের ছোট ছিল রকি।

নিহত রকির বড় ভাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত কামারুল ইসলাম রাশেদ জানান, ঘটনার দিন তার ভাই গ্রামের বাড়ি যাওয়ার কথা বলে বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। পরে রাতে তার মুঠোফোনে কল করে বলা হয় আপনার ভাই সমস্যায় পড়েছে। আপনারা দ্রুত আসেন। এর পর থেকে আর ওই নম্বরে যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি। আর তাঁর ভাইয়ের এ ধরনের করুণ মৃত্যুর কোনো কারণও তারা খুঁজে পাচ্ছেন না। তিনি অভিযোগ করে বলেন, তার ছোট ভাই রাকিবুল ইসলাম রকিকে হত্যা করে ঘটনাটি ভিন্ন খাতে নেওয়ার জন্য গাছে লাশ ঝুলে রাখা হয়েছে। তবে তার ভাইয়ের হত্যাকাণ্ডটি প্রেমঘটিত হতে পারে বলে দাবি তার।

সৈয়দপুর থানার ডিউটি অফিসার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) নিমাই চন্দ্র রায় জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমুত্যৃ মামলা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

 
 
 
 
 
 
 
error: Content is protected !!
Mature Webcam Live Cams Telegraph Theme