সৈয়দপুরে প্রতারনার ফাঁদ পেতেছে এসিসিএফ ব‌্যাংক

 
 

সিসি নিউজ, ২৭ সেপ্টেম্বর।। নীলফামারীর সৈয়দপুরে কার্যক্রম চালু করেছে আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স এন্ড ফাইন‌্যান্স ব‌্যাংক লিমিটেড (এফসিসিএফ ব‌্যাংক) নামে একটি বিতর্কিত প্রতিষ্ঠান। শহরের শের-এ-বাংলা রোডের বাবু আলী কমপ্লেক্সের দ্বিতীয় তলায় ব‌্যাংকটির ১৬৩তম শাখা হিসেবে যাত্রা শুরু করেছে। আমানত সংগ্রহে তারা ইতিমধ‌্যে হ‌্যান্ডবিলসহ নানা উপায়ে প্রচার-প্রচারনা চালাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ওই ব‌্যাংকে ম‌্যানেজারসহ ৮জন কর্মচারী দায়িত্ব পালন করছেন। এ সময় ম‌্যানেজার মোক্তাদিরুল ইসলাম সিসি নিউজকে জানান, চলতি মাসের প্রথম দিন থেকে ব‌্যাংকটির কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। মাসিক সাড়ে ১৪ হাজার টাকা ভাড়ায় নেয়া অফিসের জায়গাটি। তিনি জানান, ইতিমধ‌্যে এ শাখায় ৪৫জন গ্রাহক আমানত হিসেবে প্রায় ৪ লাখ টাকা গচ্ছিত রেখেছেন। আমানতের অঙ্কের ওপরই দেয়া হবে এক বছর মেয়াদি ঋণ। প্রতি মাসে সর্বনিম্ন ১০ হাজার টাকা আমানতের ৬ বছরে তা হবে দ্বিগুন। চলতি, সঞ্চয়ী ও বিভিন্ন ধরনের স্থায়ী আমানতের পাশাপাশি রয়েছে ক্ষুদ্র ব‌্যবসায়ীদের জন‌্য এসএমই ঋণের সুবিধা।

তবে উচ্চ আদালতের রায়ে‘ আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স এন্ড ফাইন‌্যান্স ব‌্যাংক লিমিটেড’ হিসেবে সমিতির কার্যক্রম চালুর দাবি করেন ম‌্যানেজার মোক্তাদিরুল ইসলাম। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রধান অফিস থেকে নিয়োগ প্রক্রিয়াসহ ব‌্যাংকের সকল কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। এ ব‌্যাংকের আমানতের টাকা অন‌্য ব‌্যাংকে সঞ্চয় করার কথা বললেও এখনও কোন ব‌্যাংকে সঞ্চয়ী হিসাব খোলা হয়নি বলে তিনি স্বীকার করেন। অর্থ আত্মসাতের মামলায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম জেলে রয়েছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নারী ঘটিত বিষয়ে তিনি জেলে রয়েছেন।

এ বিষয়ে কথা হয় সৈয়দপুর উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মশিউর রহমানের সাথে। তিনি সমবায় অধিদপ্তর থেকে নিবন্ধিত কোন প্রতিষ্ঠান কোন জেলা বা উপজেলা শহরে কার্যক্রম চালু করলে তা অবশ‌্যই সমবায় অফিসকে জানাতে হবে। এ ক্ষেত্রে তা করা হয়নি। এ ছাড়া সমবায় সমিতি (সংশোধন) আইন, ২০১৩ তে স্পৃষ্টভাবে উল্লেখ রয়েছে, নিবন্ধিত বা নিবন্ধনের জন‌্য প্রস্তাবিত কোন সমবায় সমিতির নামের সাথে কমার্স, ব‌্যাংক, ইনভেস্টমেন্ট, কর্মাশিয়াল ব‌্যাংক, লীজিং, ফাইনান্সিং, বা সমার্থক শব্দ ব‌্যবহার করা যাবে না। এই ধারার বিধান লঙ্ঘন হলে অনধিক ৭ বছরের কারাদন্ড বা অন‌্যুন ১০ লাখ টাকা অর্থদন্ড বা উভয়দন্ডে দন্ডিত হইবে।

সমবায় অধিদপ্তরের অতিরিক্ত নিবন্ধক (অডিট, আইন ও সমিতি) আহসান কবিরের সাথে মুঠো ফোনে কথা হলে তিনি সিসি নিউজকে জানান, অর্থ আত্মসাতের মামলায় আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম গত ১১ জুলাই গ্রেফতার হয়েছেন। বর্তমানে ওই সমিতির কোন পরিচালনা কমিটি নেই এবং সমবায় আইনে ব‌্যাংক হিসেবে পরিচালিত হতে পারবেনা। সৈয়দপুরে এ ধরনের শাখা খোলা হলে তা অবশ‌্যই প্রতারনার উদ্দেশ‌্যে কোন সংঘবদ্ধ একটি চক্র কৌশলে কাজটি করছে।

বাংলাদেশ ব‌্যাংকের একটি সূত্র জানিয়েছে, গত ২০১৭ সালের ২৩ মার্চ এক বিজ্ঞপ্তিতে আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ক্রেডিট সোসাইটি লিমিটেড সম্পর্কে মানুষকে সতর্ক থাকতে বলেছে বাংলাদেশ ব‌্যাংক। ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অতিরিক্ত মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে মানুষের কাছ থেকে চলতি, সঞ্চয়ী ও বিভিন্ন ধরনের স্থায়ী আমানত হিসেবে সংগ্রহ করছে এবং উচ্চহারে সুদ ঋণ দিচ্ছে। ওই প্রতিষ্ঠানটি লাইসেন্সপ্রাপ্ত কোনো ব‌্যাংক নয়, তাই প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে কোন ধরনের ব‌্যাংকিং কার্যক্রম না করার জন‌্য সবাইকে সতর্ক করা হচ্ছে।

সূত্র মতে, ১৯৮৪ সালের ১৩ নভেম্বর সমবায় অধিদপ্তর থেকে শুধুমাত্র ঢাকা বিভাগে কর্মএলাকার শর্তে ‘আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স এন্ড ফাইন‌্যান্স ক্রেডিট সোসাইটি’ নামে নিবন্ধন পায় প্রতিষ্ঠানটি। নিবন্ধিত ঠিকানা উল্লেখ করা হয় ৮১, হাতিঝিল বাণিজ‌্যিক এলাকা (৪র্থ তলা), ঢাকা-১০০০। পরবর্তীতে ২০১২ সালের ৮ আগষ্ট সংশোাধিত নিবন্ধনে সারাদেশে সমিতিটির কার্যক্রম চালু অনুমোদন দেয় সমবায় অধিদপ্তর। ২০১৭ সালে সমিতির পরিচালনা কমিটি সুকৌশলে ক্রেডিট সোসাইটি বাদ দিয়ে ‘ব‌্যাংক লিমিটেড’ শব্দটি জুড়ে দিয়ে ‘আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স এন্ড ফাইন‌্যান্স ব‌্যাংক লিমিটেড’ নামে অবৈধভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করতে থাকে।

চলতি বছরের ১১ জুলাই ১৬ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলামকে গ্রেফতার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। অর্থ আত্মসাৎ ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে তাজুল ইসলামসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে বংশাল থানায় মামলা দায়ের করেন সুফিয়া আক্তার নামে এক ভুক্তভোগী নারী। মামলার অন্য আসামিরা হলেন—আজিজ কো-অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ব্যাংক লিমিটেডের ব্র্যাঞ্চ কন্ট্রোলার ও ব্যবস্থাপক লাকী খাতুন (৩২), শাখা ব্যবস্থাপক মো. দ্বীন মোহাম্মদ (৪২), নবাবপুর শাখা ব্যবস্থাপক ইকবাল হোসেন (৩৫) ও ব্যাংকের উপদেষ্টা মো. নুরুন্নবী (৬৫)।

Print Friendly, PDF & Email