সৈয়দপুরে লবন নিয়ে লঙ্কাকান্ড

 
 

সিসি নিউজ, ১৯ নভেম্বর ।। সৈয়দপুরে হঠাৎ বেড়ে গেছে লবণের দাম। গুজবে গোটা উপজেলা জুড়ে লবণ নিয়ে চলছে লংকাকাণ্ড। মূল্যবৃদ্ধি ও মজুত রেখে ক্রেতাকে না দেয়ায় ক্রেতা-বিক্রেতাদের মধ্যে বাক-বিতণ্ডার ঘটনাও ঘটেছে।

১৫ টাকার খোলা লবণের কেজি ৩০ টাকা এবং প্যাকেটজাত ৩৫ টাকার লবণ ৬০ থেকে ১০০ টাকা কেজি দরেও বিক্রি হয়েছে। প্রয়োজনের চাইতে অনেক বেশি লবণ মজুত করেছে কোনো কোনো পরিবার। ৫ থেকে ১০ কেজি লবণ ক্রয় করেছে কেউ কেউ।

বিভিন্ন দোকানে লবণ ক্রয় করতে উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। ভিড়ের কারণে যানজট লেগে ছিল শহরের বিভিন্ন রাস্তায়।

এগুজব এড়াতে পুলিশ প্রশাসন মাইকে প্রচারের পাশাপাশি বাজারে পুলিশ মোতায়েন করেছে। অতিরিক্ত মূল্যে লবণ বিক্রি করা হলে বা একসাথে ৮/১০ কেজি লবন কেউ ক্রয় করলে তাদেরকে আইনের আওতায় নেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়।

অভিযোগ রয়েছে, বিভিন্ন এলাকাভিত্তিক ছোট ছোট দোকানগুলোর ব্যবসায়ীরা অতিরিক্ত মুনাফার লোভে লবণ বিক্রি বন্ধ করে দেন। এতে করে গুজব আরো ডানা মেলে।

সরেজমিনে দেখা যায়, গুজব এমন ডালপালা মেলেছে, শিক্ষিত, অর্ধশিক্ষিত সকল শ্রেণির মানুষ লবণ কিনতে ভিড় করছেন। অনেকে মোটরসাইকেল কিংবা অটোরিকসা করে দূর দূরান্ত থেকে এসে লবণ কিনছেন। একের পর এক ক্রেতা লবণ কিনতে লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন।

এদিকে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম গোলাম কিবরিয়া রাতে বাজারের লবনের দোকানগুলোতে ক্রেতা সেজে লবনের দাম মনিটরিং করছেন।

এ সময় সিসি নিউজকে তিনি বলেন, লবণের দাম বাড়ানোর কোনো কারণ নেই। লবেণের দাম বৃদ্ধির বিষয়টি সম্পুর্ণ গুজব। এ ধরনের গুজব ছড়িয়ে কেউ বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। একটি সিন্ডিকেট মানুষকে বিভ্রান্ত করার জন্য অপপ্রচার চালাচ্ছে। এ ব্যাপারে আমরা তৎপর রয়েছি। তাই গুজবে কান না দিয়ে সবাইকে সচেতন থাকার আহবান জানান তিনি।

Print Friendly, PDF & Email