সৈয়দপুর পৌর মেয়রের কাছে পাওনা টাকা আদায়ের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

 
 

সিসি নিউজ, ২১ নভেম্বর।। নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র মো. আমজাদ হোসেন সরকারের কাছে পাওনা টাকা আদায়ে দাবিতে আমরণ অনশনের ঘোষণায় সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। সিঙ্গার বাংলাদেশ সৈয়দপুর শাখার ম্যানেজার নূরুল আমিন আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে শোরুমে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত সংবাদকর্মীদের উদ্দেশ‌্যে লিখিত বক্তব‌্যে এ তথ‌্য জানান।

ব্র্যাঞ্চ ম্যানেজার নূরুল আমিন তাঁর লিখিত বক্তবে বলেন, তিনি গত ২০১১ সাল থেকে সিঙ্গার বাংলাদেশ এর সৈয়দপুর শাখার ম্যানেজার হিসেবে অত্যন্ত ন্যায়নিষ্ঠা, সুনামের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। ২০১৬ সালে তিনি ভাল পারফর্মেন্সের জন্য কোম্পানির ম্যান অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হন। এছাড়াও প্রতি বছর কোম্পানির পক্ষ থেকে যে দেশসেরা ১০ সেলার শাখা নির্বাচিত করা হয়ে থাকে তার মধ্যে সৈয়দপুর শাখার অবস্থান রয়েছে। ইতোমধ্যে তিনি তাঁর কর্মজীবনের সফলতার জন্য কোম্পানির খরচে পাঁচটি দেশ ভ্রমনের সুযোগ পেয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে ব্র্যাঞ্চ ম্যানেজার বলেন, গত ২০১৮ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র আমজাদ হোসেন সরকার তাঁর কোম্পানি সিঙ্গার বাংলাদেশ এর সৈয়দপুর শো-রুম থেকে সর্বমোট ৭১ লাখ ১৬ হাজার নয় শত ৫৪ টাকার বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী ক্রয় করেন। এর মধ্যে তিনি (মেয়র) সৈয়দপুর পৌরসভা থেকে ৩৮ লাখ ৯৮ হাজার টাকা পরিশোধ করেন। আর তাঁর নিকট সিঙ্গার বাংলাদেশ এর ৩২ লাখ ১৮ হাজার ৫শ ১৩ টাকা বকেয়া থাকে। ওই বকেয়া টাকার জন্য ব্র্যাঞ্চ ম্যানেজার হিসেবে আমি (নুরুল আমিন) বার বার পৌর মেয়রের কাছে ধর্ণা দেই। কিন্তু পৌর মেয়র দীর্ঘদিনেও বকেয়া থাকা উল্লিখিত পরিমাণ টাকা পরিশোধ করেননি। এছাড়াও বকেয়া টাকার জন্য কোম্পানির বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা একাধিকবার সৈয়দপুর পৌর মেয়র সঙ্গে দেন দরবার করেন।

এদিকে কোম্পানির বিপুল পরিমাণ টাকা বকেয়া থাকায় কোম্পানি থেকে আমাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। গত ১৪ নভেম্বর ব্র্যাঞ্চ ম্যানেজার হিসেবে আমি বকেয়া টাকার জন্য পৌর মেয়র সঙ্গে সাক্ষাৎ করি। এ সময় আমি বকেয়া আদায়ে মেয়রের গাড়ির সামনে শুয়ে পড়ি। পরবর্তীতে সেখানে লোকজনের উপস্থিতিতে মেয়র তিন দিনের মধ্যে বকেয়া টাকা পরিশোধের আশ্বাস দেন। কিন্তু ওই আশ্বাসের পর গত সাতদিনেও পৌর মেয়র বকেয়া টাকা পরিশোধের কোন ব্যবস্থা নেয়নি।

এ অবস্থায় আজ বৃহস্পতিবার কোম্পানির শাখা ব্যবস্থাপক নুরুল আমিন পৌর মেয়র আমাজাদ হোসেন সরকারের কাছে বকেয়া টাকা আদায়ে আমরণ অনশনের ঘোষণায় সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি কোম্পানির বকেয়া ৩২ লাখ ১৮ হাজার ৫১৩ টাকা পরিশোধের জন্য পৌর মেয়রকে তিন দিনে আল্টিমেটাম দেন। এ সময়ে মধ্যে তিনি কোম্পানির বকেয়া টাকা পরিশোধ না করলে ব্র্যাঞ্চ ম্যানেজার নুরুল আমিন সৈয়দপুর কার্যালয়ের সামনে কাপনের কাপড় পড়ে আমরণ অনশনের ঘোষণা দেন।

Print Friendly, PDF & Email