সৈয়দপুরে মৎস্য বিভাগের উদ্যোগে গলদা-কার্প মিশ্র চাষ

 
 

সিসি নিউজ, ১১ ডিসেম্বর ।। নীলফামারীর সৈয়দপুরে মৎস্য অধিদপ্তরের অধীন ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণে প্রকল্পের (২য় পর্যায়) আওতায় গলদা-কার্প মিশ্র চাষ প্রদর্শনীর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বুধবার সকালে সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের প্রামানিকপাড়া মাঠে ফলাফল প্রদর্শকের পুকুর পাড় সংলগ্ন এলাকায় ওই মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। সৈয়দপুর সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসারের কার্যালয় ওই মাঠ দিবসের আয়োজন করে।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মোখছেদুল মোমিন।
এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন নীলফামারী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আশরাফুজ্জামান, ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণে প্রকল্পের (২য় পর্যায়) উপ- প্রকল্প পরিচালক মো. বদরুজ্জামান মানিক ও সৈয়দপুর উপজেলা ভাইস্ চেয়ারম্যান মো. আজমল হোসেন।
সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নাসিম আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে স্বাগত বক্তব্য দেন সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার সানি খান মজলিস।
এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সৈয়দপুর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোছা. হোমায়রা মন্ডল, উপজেলা প্রাণি সম্পদ ডা. মো. রাশেদুল হক, মৎস্য চাষ প্রদর্শনীর ফলাফল প্রদর্শক (আরডি) মো. আজিজুল হক মিলন, স্থায়ী মৎস্য চাষী মো. রাইসুল ইসলাম লাকী প্রমূখ।
গোটা মাঠ দিবস অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা উপজেলা সহকারি মৎস্য অফিসার খগেন্দ্র নাথ রায়।
অনুষ্ঠানে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নুরুন্নাহার শাহজাদী, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা হাওয়া বিবি, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা আল- মিজানুর রহমান, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, মৎস্যচাষীরা উপস্থিত ছিলেন।
সৈয়দপুর সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের প্রামানিকপাড়ার মৎস্য চাষী মো. আজিজুল হক মিলনের ৩৩ শতকের পুকুরে ওই গলদা-কার্প মিশ্র চাষ প্রদর্শনী করা হয়। মৎস্য অধিদপ্তরের অধীন ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎস্য চাষ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণে প্রকল্পের (২য় পর্যায়) আওতায় গলদা-কার্প মিশ্র চাষ প্রদর্শনীর জন্য আরডি আজিজুল হক মিলনকে ৩৫০ পিস কার্প এবং ১ হাজার পিস গলদা পোনা মাছ সরবরাহ করা হয়। আর মৎস্য প্রদশর্নীর জন্য প্রকল্পের আওতায় পোনা মাছ,খাদ্যসহ ৪০ হাজার টাকার উপকরণ প্রদান করা হয়েছে। প্রদর্শনীতে সর্বমোট ৮২ হাজার টাকা ব্যয় হয়। মৎস্য বিভাগ প্রতি হেক্টর পুকুরে ৩ দশমিক মেট্রিন টন কার্প এবং শূন্য দমশিক ৫ মেট্রিন টন গলদা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা করা হয়েছিল। কিন্তু লক্ষ্যমাত্রা চেয়ে আশাতীত উৎপাদন মিলেছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

Print Friendly, PDF & Email