• বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ১১:৫৪ অপরাহ্ন |

মুক্তিযুদ্ধের ৪৯ বছর পর প্রকাশ হচ্ছে রাজাকারের তালিকা

সিসি ডেস্ক, ১৫ ডিসেম্বর ।। মুক্তিযুদ্ধের ৪৯ বছর পর প্রথমবার প্রকাশ হচ্ছে রাজাকারের তালিকা। প্রথম ধাপের এই তালিকায় রয়েছে ১১ হাজার রাজাকারের নাম। যারা একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় গণহত্যা ও ধর্ষণ-লুটপাটের মত মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত। আজ রোববার এ তালিকা প্রকাশ করবে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়।

একাত্তরে স্বাধীন-সার্বভৌম দেশের চাওয়া যখন সারা বাংলার মানুষের। তখন নিরস্ত্র বাঙালির ওপর নির্বিচারে গুলি ও নির্যাতন শুরু করে পাকিস্তানি বাহিনী। তাদেরকে মুক্তিযোদ্ধাদের তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করেছে রাজাকার, শান্তি কমিটি, আলবদর ও আলশামস বাহিনীর সদস্যরা। এসব বাহিনীর সদস্যরা সাধারণ বাঙালি ও মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র তুলে নেয়। চালায় নৃশংস গণহত্যা, ধর্ষণ ও নির্যাতন।

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে এরই মধ্যে রাজাকারদের শীর্ষ নেতা গোলাম আজম, মতিউর রহমান নিজামী, মুজাহিদ, সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী, কাদের মোল্লা ও দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর সাজা হয়েছে। কিন্তু রাজাকার, আলবদর, আল শামস বাহিনীর আরো অনেকের নাম বর্তমান প্রজন্মের অজানা।

এবার তাদের তালিকা প্রকাশ করতে যাচ্ছে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়। একাত্তরের রাজাকার বাহিনীর সদস্য হিসেবে যারা ভাতা নিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় তাদের তথ্য সংগ্রহ করেছে। প্রথম ধাপে প্রকাশ হচ্ছে সেরকম ১১ হাজারের নাম। এরপর জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে নথিভুক্ত রাজাকারদের তালিকা প্রকাশ হবে।

তালিকা প্রকাশের পর শুরু হবে এই রাজাকারদের বিচার। তবে সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে মামলা করতে হবে ভুক্তভোগী কোন পরিবারকে। স্বাধীনতা বিরোধিতাকারী রাজাকারদের নাম, পরিচয় ও ভূমিকা সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে জানানো এবং বিচারের মুখোমুখি করাই উদ্দেশ্য বলে জানান মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।।

উৎস: ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ