গর্ভবতী মায়েদের জন্য খানসামায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

 
 

এস.এম. রকি, খানসামা (দিনাজপুর) ।। গর্ভবতী মায়েদের জন্য দিনাজপুরের খানসামায় বিভিন্ন ধরনের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিস থেকে জানা যায়, প্রেগন্যান্সি ম্যাপের মাধ্যমে গর্ভবতী মায়েদের ডাটাবেজ তৈরী করে গর্ভবতী মায়েদেরকে প্রসব পূর্ববর্তী মানসম্মত ও মর্যাদাপূর্ণ এএনসি সেবা ও প্রসব পরবর্তী পিএনসি সেবা দেওয়া হয় এবং গর্ভবতী মায়েদের যাতায়াতের জন্য বিনামূল্যে এ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস, বিনামূল্যে প্রসাব ও রক্তের বিভিন্ন পরীক্ষা ও ফ্রী আয়রন আর ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট প্রদান করা হয় এবং প্রতি ইউনিয়নে প্রেগন্যান্সি “মাদারস ক্লাব” এর উঠান বৈঠক ও গর্ভবতী মা সমাবেশের মাধ্যমে নরমাল ডেলিভারি কিংবা প্রাতিষ্ঠানিক ডেলিভারি করতে উদ্ধুদ্ধকরণ কর্মসূচী পালিত হয়।

এছাড়াও ব্যতিক্রমী উদ্যোগগুলো হল গর্ভবতী মায়েদের যেকোনো প্রয়োজনে ২৪ ঘন্টা হটলাইন সার্ভিস চালু আছে, প্রসবকালীন জটিলতা নিরসনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ ও নিরাপদ প্রসবের জন্য সারাক্ষণ মিডওয়াইফ প্রস্তুত থাকা, সমাজসেবা অধিদপ্তরের মাধ্যমে নবজাতক শিশুদের উপহার সামগ্রী প্রদান ও শিশুদের জন্মসনদ প্রদান করা হয়।

এতে উপজেলায় স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে রোগীদের আস্থা ও সেবাগ্রহীতার সংখ্যা বেড়েছে যার ফলে খানসামা উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ গত বছরে রংপুর বিভাগের শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হয় ।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবা নিতে আসা পাকেরহাট গ্রামের নুরায়না নামে এক রোগী জানান, এইঠে সব পরীক্ষা-নীরিক্ষা হয় আগের মতন ঝামেলা নাই আর সমস্যা হইলে তো আপাদেরকে ফোন দেই।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা.শামসুদ্দোহা মুকুল জানান, সেবার মান বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রাতিষ্ঠানিক ডেলিভারির সংখ্যা খানসামায় শতভাগ যার ফলে মা ও শিশু মৃত্যুর হার প্রায় শূন্যের কোঠায়।

এবিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডা.আবু রেজা মো.মাহমুদুল হক জানান, চিকিৎসক, মিডওয়াইফ-নার্স ও স্বাস্থ্য সহকারীদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারণে গর্ভবতী মায়েদের জন্য নানামুখী উদ্যোগ আশার আলো দেখেছে।আওয়ামী লীগ সরকার ঘোষণা “জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্য সেবা” বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আগামীতে আরো বেশী সৃজনশীল ও কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email