• রবিবার, ০৫ এপ্রিল ২০২০, ১০:১৭ অপরাহ্ন |
শিরোনাম :

ঢাকায় বিএনপির হাল ধরছেন তাবিথ-ইশরাক

Red Chilli Saidpur

সিসি ডেস্ক ।। ঢাকা মহানগর বিএনপির নেতৃত্বে আসছেন ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন পরাজিত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও ইশরাক হোসেন। সাধারণ সম্পাদক পদে উত্তরে তাবিথ ও দক্ষিণে ইশরাকের নাম আলোচনায় আছে। এই দুই তরুণ দলের নেতৃত্বে এলে ঢাকায় অভ্যন্তরীণ কোন্দল দূর হবে বলে আশা তৃণমূল নেতাদের।

সরকার বিরোধী আন্দোলন বা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রাজপথে অবস্থান কোন কিছুতেই আসছে না সফলতা। আর এর পুরো দায় পড়ছে ঢাকা মহানগর বিএনপির উপর। বছর তিনেক আগে মহানগর দুই ভাগ করে কমিটি করা হলেও ঢাকায় দৃশ্যমান কোন আন্দোলন গড়ে তুলতে পারেনি নতুন নেতৃত্ব।

ঢাকা উত্তরে মেয়াদোত্তীর্ণ বর্তমান কমিটির সভাপতি এম এ কাইয়ুম দীর্ঘ দিন ধরে অবস্থান করছেন মালয়েশিয়ায়। পুলিশের খাতায় পলাতক হিসেবে নাম তার। সাধারণ সম্পাদকসহ অন্য নেতাদের কার্যক্রমও তেমন দৃশ্যমান নয়।

উত্তরে দায়িত্ব পেলে তা চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিতে চান তাবিথ আউয়াল।

বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল বলেন, দেশের জন্য অবদান রাখার জন্য যেকোন প্রক্রিয়ায় যে দায়িত্ব দেয়া হক না কেন আমি করতে প্রস্তুত আছি। তার এই বক্তব্য ঘিরে উত্তর দক্ষিণের নেতাকর্মীদের মনে ধোঁয়াশার পাশাপাশি প্রত্যাশাও তৈরি হয়েছে মহানগরের ২ কমিটির ভবিষ্যত নেতৃত্ব নিয়ে।

মহানগর ও অঙ্গ সংগঠনের নেতারাও চাইছেন এমন নেতৃত্ব

ঢাকা দক্ষিনে রাজনীতিতে একেবারেই নতুন, প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইশরাক হোসেন পেতে পারেন সাধারণ সম্পাদক পদ। সিটি নির্বাচনে সবার কাছে তিনি তার গ্রহণযোগ্যতা প্রমাণ করতে পেরেছেন বলে মনে করছেন মহানগর নেতারা।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহসভাপতি নবীউল্লাহ নবী বলেন, কমিটি নতুন এবং পুরাতনদের নিয়ে করলেই সংগঠনটি শক্তিশালী হবে। আর নির্বাচিতরা যেন অবশ্যই ঢাকার বাসিন্দা হয় কোনো ভাড়াটিয়া নেতা দিয়ে যেন করা না হয়।

বিএনপির জেষ্ঠ্য নেতারা বলছেন, ঢাকায় শক্ত অবস্থান তৈরিতে এবার সবার মতামতের ভিত্তিতেই করা হবে নতুন কমিটি।

বিএনপির আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেন, রাজনীতি হচ্ছে ফুলের মত। তাড়াতাড়ি করে কোন ফুলকে ফুটাতে গেলে সব ঝড়ে পরে যায়। তবে এটা বলা যায় যে ভবিষ্যত নেতৃত্ব তাদের হাতেই।

খুব শিগগিরই ঢাকা মহানগর কমিটি গঠন করা হবে বলেও জানান বিএনপির জেষ্ঠ্য নেতারা।

গত বছরের ১৯ এপ্রিল শেষ হয়েছে বিএনপি ঢাকার দুই কমিটির মেয়াদ।

উৎস: ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ