• সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ০১:০০ অপরাহ্ন |

দেড় শতাধিক নার্সের হাসপাতাল ত্যাগের চেষ্টা!

Red Chilli Saidpur

সিসি ডেস্ক, ২১ মার্চ ।। টাঙ্গাইলের মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে করোনা আতঙ্কে দেড় শতাধিক নার্স হাসপাতাল ত্যাগের চেষ্টা করেছে। শনিবার (২১ মার্চ) বিকেলে তারা হাসপাতাল ত্যাগের চেষ্টা করে।

জানা গেছে, গত দুইদিন আগে শ্বাসকষ্ট নিয়ে কুমুদিনী হাসপাতালে একজন রোগী ভর্তি হন। কিন্ত ওই রোগীকে কর্মরত চিকিৎসকরা এড়িয়ে চলায় নার্সদের মধ্যে সন্দেহের সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে তারা একযোগে প্রায় দেড়শতাধিক নার্স তাদের ব্যাগ নিয়ে বিকেলে হাসপাতালের প্রধান ফটক দিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।এসময় হাসপাতালে কর্তব্যরত নিরাপত্তাকর্মীরা তাদের বাঁধা দিয়ে উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন। এ সময় সেবিকারা বাধাপ্রাপ্ত হয়ে হাসপাতালের পুরাতন ডক্টরস ক্লাবের সামনে অবস্থান নেন।নার্সদের হাসপাতাল ত্যাগের চেষ্টার খবর পেয়ে কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচালক ডা. প্রদীপ কুমার রায়, কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা.আব্দুল হালিম, কুমুদিনী নার্সিং স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সিপাল রিনা ক্রুস, কুমুদিনী হাসপাতালের এজিএম অনিমেশ ভৌমিক ঘটনাস্থলে যেয়ে আতঙ্কিত সেবিকাদের সঙ্গে কথা বলেন।

এসময় আতঙ্কিত নার্সরা রোগীদের সেবা দিতে তাদের সুরক্ষা পোষাক ও সরঞ্জাম না থাকার অভিযোগ তুলেন এবং তা সরবরাহের দাবি জানান। পরে হাসপতালের পরিচালক ডা. প্রদীপ কুমার রায় তাদের সুরক্ষা দিতে সকল প্রকার সুরক্ষা সরঞ্জাম সরবরাহের আশ্বাস দেন। এ সময় তিনি তাদের জানান, দুই একদিনের মধ্যে বিদেশ থেকে উন্নত মানের ৪ শতাধিক সুরক্ষা পোষাক হাসপাতালে এসে পৌঁছাবে।এই আশ্বাসে নার্সরা তাদের কর্মস্থলে ফিরে গেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ