• মঙ্গলবার, ০২ জুন ২০২০, ১০:৫৮ অপরাহ্ন |

তবলিগের ২০ হাজারেরও বেশি মুসল্লি কোয়ারেন্টিনে

Red Chilli Saidpur

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।। পাকিস্তানে তবলিগ জামাতে অংশ নেয়া ২০ হাজারের বেশি মুসল্লিকে কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে। গত মাসে অনুষ্ঠিত ওই জামাতে অংশগ্রহণকারী আরও হাজার হাজার মানুষকে খুঁজে বের করার চেষ্টা চালাচ্ছে ইসলামাবাদ সরকার।

পাকিস্তানে করোনা সংক্রামণ ঘটার পরও ১০-১২ মার্চ পর্ন্ত ওই তবলিগ জামাত অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমান অংশ নিয়েছিলেন। সরকারের আশঙ্কা তবলিগে অংশ নেয়া মুসল্লিদের মাধ্যমে করোনা ভয়ঙ্কর রূপ নিতে পারে। এজন্য তাদের সনাক্ত করে কোয়োরেন্টিনে নেয়ার চেষ্টা করছে ইসলামাবাদ।

জানা যায়, লাহোর শহরের এক মসজিদে অনুষ্ঠিত ওই জামাতে ১ লাখের বেশি মানুষ অংশ নিয়েছিলেন। করোনা আক্রান্ত দেশটিতে সরকারের অনুরোধ অগ্রাহ্য করে ওই ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন আয়োজকরা।

লাহোর জামাতে অংশ নেয়া ৫৩০০ জন মুসল্লিকে কোয়ারেন্টিনে নিয়েছে খাইবার পাকতুনখাওয়া প্রদেশের সরকার। চিকিৎসকরা তাদের করোনা পরীক্ষা করে দেখছেন। তাদের অনেকের করোনা পরীক্ষার ফলাফল ইতিবাচক এসেছে বলে জানা গেছে।

এছাড়া পাঞ্জাব প্রদেশের রাজধানী লাহোরে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে আরও প্রায় ৭ হাজার মানুষকে। তবলিগে অংশ নেয়া ৮ হাজারের বেশি মানুষকে কোয়ারেন্টিনে নিয়েছে সিন্ধু প্রদেশের সরকার।

পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশে আরও বেশ কিছু মানুষকে সেল্প আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

এ অবস্থায় গত মাসের শেষ নাগাদ পাকিস্তানের বিভিন্ন স্থানে তবলিগি মসজিদ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

পাক কর্তৃপক্ষ আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানায়, গত মাসে ওই তবলিগে অংশ নেয়া কমপক্ষে ১৫৪ জনের দেহে করোনাভাইরাস সনাক্ত হয়েছে।

পাকিস্তানে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজারের বেশি মানুষ এবং মারা গেছেন আরও ৪৭ জন।

এ অবস্থায় ওই তবলিগ জামাতের কারণে দেশটিতে করোনা রোগীর সংখ্যা আরও ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পারতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। যে কারণে এই ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যোগ দেয়া ব্যক্তিদের খুঁজে বের করতে তৎপর রয়েছে পাকিস্তান।

দ্য স্ট্রেইটস টাইমস অবলম্বনে


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ