• মঙ্গলবার, ০২ জুন ২০২০, ১১:১১ অপরাহ্ন |

রাজারহাটে দুই ভূয়া ডিবি পুলিশ আটক

Red Chilli Saidpur

রাজারহাট (কুড়িগ্রাম)।। কুড়িগ্রামের রাজারহাটে ৫এপ্রিল রবিবার রাতে ডিবি পুলিশের ভুয়া পরিচয়ে এক ব্যবসায়ীকে ৩লাখ টাকা সহ অপহরন করে নিয়ে যাওয়ার সময় প্রতারক চক্রের দুই সদস্যকে জনগন আটক করে রাজারহাট থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে। এ ঘটনায় রাজারহাট থানায় একটি চাঁদাবাজি মামলার দায়ের হয়েছে। ৬এপ্রিল আটককৃতদের পুলিশ কুড়িগ্রাম জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের ডাংরারহাট বাজারে ৫এপ্রিল রবিবার রাত ৯ঘটিকার সময় ৩জন ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান লকডাউন না করার কারণ জানতে চেয়ে ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে। ভয়ে লোকজন দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যায়। এসময় প্রতারকচক্রের দু’জন দু’টি ওয়াকিটোকি হাতে নিয়ে ওই বাজারের ওষুধ ব্যবসায়ী ও বিকাশ এজেন্ট জাহাঙ্গীরের দোকান প্রবেশ করে। জাহাঙ্গীরের অনুপস্থিতিতে ওই দোকানে অবস্থানরত তার ভাতিজা ফিরোজকে বলে তোর বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে দোকানের সমস্ত টাকা পয়সা নিয়ে থানায় যেতে হবে। ফিরোজ তাদের সাথে যেতে না চাইলে ওই প্রতারক চক্র তাকে জোরপূর্বক মোটরসাইকেলে উঠিয়ে নিয়ে যায়।
বিষয়টি এলাকার এক যুবকের সন্দেহ হলে মোবাইল ফোনে রাজারহাট থানার ওসির কাছে তারা ডিবি পুলিশ কিনা বিষয়টি জানতে চায়। রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃষ্ণ কুমার সরকার তাদেরকে আটক করার কথা বলেন। পরে কয়েকজন যুবক মোটর সাইকেল নিয়ে অপহরনকারীর পিছু পিছু ধাওয়া করেন। পথিমধ্যে বাছড়া বাজারের সন্নিকটে অপহৃত যুবক বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করলে অপহরনকারীরা মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে এলাকাবাসীরা ২প্রতারককে আটক করে। আটককৃতদের মধ্যে রিপন সরকার(৩৮) উপজেলার উমরমজিদ ইউনিয়নের বালাকান্দি গ্রামের আঃ রাজ্জাক ব্যাপারীর পুত্র এবং আতাউর রহমান আপেল (২৫) একই গ্রামের মৃত-ইসমাইল হোসেনের পুত্র। তারা একই গ্রামের আঃ হামিদ মন্ডলের পুত্র মেহেদি হাসান শিলু (২৮) সহ ভূয়া ডিবি পুলিশ সেজে ডাংরারহাট বাজারে প্রবেশ করে চাঁদাবাজি করে বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করে। তাদের ২জন জনগনের কাছে আটক হলেও অপর প্রতারক মেহেদি হাসান পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। খবর পেয়ে রাজারহাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের গ্রেফতার করে প্রতারক চক্রের ব্যবহৃত একটি বাজাজ সিটি ১০০ মোটরসাইকেল উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। তবে তাদের সাথে থাকা ওয়াকিটোকি ২টি পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি। ওই মোটর সাইকেলের মালিক জনৈক রাজা মিয়াও প্রতারক চক্রের সদস্য বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় রাজারহাট থানায় একটি চাঁদাবাজি মামলা দায়ের হয়েছে। ৬এপ্রিল সোমবার আটককৃতদের পুলিশ কুড়িগ্রাম জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।
রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ কৃষ্ণ কুমার সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সন্ধ্যার পর পর বাজারগুলো জনশুন্য থাকায় প্রতারকরা সুযোগ নিয়ে এ ধরনের অপরাধ করেছে। অপর আসামীদেরকেও আটক করতে পুলিশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ