• শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ০৬:০৫ পূর্বাহ্ন |

জহুরুল জিহাদ-এর কবিতা ‘মহামারী করোনা’

Red Chilli Saidpur

মহামারী করোনায় নিষ্ঠুর যাতনায় ওষ্ঠাগত হায়,
সঙ্গোনিরোধ কত নির্মমবোধ ফুঁপিয়ে কাঁদে মায়।
সর্বাঙ্গে জ্বর কাঁপে থরথর
বাজান এসেছে ঘরে,
ধরা যাবে না ছোঁয়া যাবে না চোদ্দদিনের তরে।।
স্বামী আসার কথা শুনিয়া
ছেলে সন্তান লয়ে,
স্ত্রী গেছে বাপের বাড়ি
ছোঁয়াছে করোনার ভয়ে।
মোবাইল ফোনে হয়েছে কথা চোদ্দদিন পরে,
বেঁচে থাকলে হবে দেখা
নয়তো পরপারে ।।
কাশি, গলা ব্যথা, হাঁচি,
তিন দিন হলে পার,
হাসপাতালে ভর্তি কোভিড-19 পজিটিভ তার।
নামাজে দাড়িয়ে মায়
কাঁদিয়া বুক ভাসায় ডরে,
বাছা বুঝি মোর চলিল বহুদূর চিরদিনের তরে।।
ভোর না হতেই কাকের ডাকে
ঘুম ভেঙ্গে যায় মার,
বুকের ভেতর হু হু করে
অজানা আশংকার।
থানা পুলিশের ডাক চিৎকারে দরজা খুলে মা,
কাপড়ে মোড়ানো বাছার লাশ অন্তিম স্পর্শও না।।
স্ত্রী-সন্তান দূরেই রইল
আত্মীয়-স্বজনও না,
থানা পুলিশ জানাজা পড়াইল
আর গোটা দশজনা।।
মরণের ভয়ে কেউ এলোনা ধরলোনা কেউ খাটিয়া,
কবর খুঁড়তে মাটি দিতেও
এলো না কেউ হাঁটিয়া ।।
মরণরে সত্য জানি
তবুও মরণরে হেলা করি,
মরণের কথায় হতাশা,বিষাদ,
আশ্চর্যের ভেক ধরি।
মরণরে এবার করেছি স্বরণ মহামারী করোনায়,
ভূলেছি দলাদলি ভেদাভেদ মিলেছি মোহনায়।।
((বি:দ্র: মহামারী করোনা প্রতিরোধ যুদ্ধের প্রথম প্রথম শহীদ ডা: মঈন উদ্দিন, করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণকারী, পুলিশ বাহিনীর আমার সহযোদ্ধা,ডাক্তার, আর্মি, সিভিল প্রশাসন ও সাংবাদিক সহ সকল প্রতিরোধ যোদ্ধাদের উদ্দেশ্যেই এই প্রয়াস))


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ