• শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ০৪:২১ পূর্বাহ্ন |

করোনা সংকটে ত্রাণ তহবিলে ৩৮ কোটি টাকা দিচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়

Red Chilli Saidpur

সিসি ডেস্ক, ০৯ মে ।। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সংকট মোকাবিলায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও এর আওতাধীন দপ্তর, সংস্থাগুলোর পক্ষ  থেকে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ   তহবিলে ৩৮ কোটি ২২ লাখ টাকা  অনুদান হিসেবে দেওয়া হচ্ছে।রোববার (১০ মে)  প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমেদ কায়কাউসের কাছে অনুদানের অনুদানের চেক হস্তান্তর করবেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুই বিভাগের সচিব।

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা   গেছে,   করোনাভাইরাস   সংকট   মোকাবিলায়   শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুই বিভাগ এবং আওতাধীন দপ্তর ও সংস্থাগুলোতে কর্মরত   কর্মকর্তা-কর্মচারীরা   স্বেচ্চায়   এক দিনের   মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ দেন।

এর মধ্যে মাধ্যমিক ও  উচ্চ শিক্ষা   বিভাগ   ও  তার   আওতাধীন ১৬টি দপ্তর ও প্রতিষ্ঠান মোট ২৯ কোটি ৯২ লাখ ২৯ হাজার এবং কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগ ৮ কোটি ৩০ লাখ ৩৮ হাজার মোট ৩৮ কোটি ২২ লাখ টাকা সংগ্রহ হয়েছে। তারমধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ ১ কোটি ৭০ লাখ, বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিল ১৮ হাজার ৮৫৩ টাকা, বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো ১ লাখ ১৮ হাজার, এনটিআরসিএ   একদিনের   বেতন   ৪৭   হাজার   ও  বিশেষ অনুদান   হিসেবে   আরও   ১   কোটি   টাকা   দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রধানমন্ত্রীর   শিক্ষা   সহায়তা   ট্রাস্ট   ১৭ হাজার,   বাংলাদেশ   ইউনেস্কো   কমিশন   ২৯   হাজার,   শিক্ষা প্রকৌশল   অধিদপ্তর   ৭   লাখ,   শিক্ষা   প্রকৌশল   অধিদপ্তরে ইঞ্জিনিয়ার্স   অ্যাসোসিয়েশন   এবং   ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স   অ্যাসোসিয়েশন   ৫   লাখ   করে   ১০   লাখ, আন্তর্জাতিক   মাতৃভাষা   ইনস্টিটিউশন   ৩০   হাজার, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা   অধিদপ্তর ৩ লাখ এবং   এ  অধিদপ্তরের আতওাধীন মাঠ পর্যায়ে অফিসসমূহে ২৬ কোটি ৫১ লাখ ১৪ হাজার টাকা, নায়েম ১ লাখ ৮৯ হাজার, এনসিটিবি বেতনের অংশ ২ লাখ ৭ হাজার এবং বিশেষ অনুদান হিসেবে আরও   ১   কোটি   টাকা   দিয়েছে।

ডিআইএ   ৬৩   হাজার, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ডগুলো বেতনের অংশ ১১ লাখ ৫৯ হাজার এবং বিশেষ অনুদান হিসেবে আরও ১ কোটি টাকা দিয়েছে।   কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগ মোট ৮ কোটি ৩০ লাখ ৩৮ হাজার   টাকা   অনুদান   হিসেবে   সংগ্রহ  করেছে।

মন্ত্রণালয়ের   কারিগরি   ও   মাদ্রাসা   বিভাগ   এবং   জাতীয় কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও গবেষনা একাডেমি মিলে ১ কোটি ৫৯ লাখ, কারিগরি অধিদপ্তর ৬২ লাখ ৫২৯ টাকা, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতাধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো ৭০ লাখ, মাদ্রাসাশিক্ষা   অধিদপ্তর,   মাদ্রাসা   শিক্ষক   প্রশিক্ষণ   একাডেমি   ও মাদ্রাসা অধিদপ্তরাধীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ৭ কোটি ৫৮ লাখ ১৬ হাজার টাকা দিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ