• মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন |

লালমনিরহাট ও ঠাকুরগাঁওয়ে এসএসসি ফেল করায় পরীক্ষার্থীর আত্নহত্যা

Red Chilli Saidpur

সিসি ডেস্ক, ৩১ মে ।। লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় এসএসসি ফেল করা করায় লাইজু আক্তার(১৬) নামে এক পরীক্ষার্থী আত্নহত্যা করেছে।

রোববার(৩১ মে) দুপুরে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধিন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

মৃত পরীক্ষার্থী লাইজু আক্তার উপজেলার পাটিকাপাড়া ইউনিয়নের পারুলিয়া গ্রামের মৃত জেল হকের মেয়ে। সে চলতি বছর স্থানীয় পারুলিয়া তফসলি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গত বছর ফেল করে পুনরায় চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় লাইজু আক্তার। রোববার ফলাফল প্রকাশ হলে সে পুনরায় অকৃতকার্য হয়। এতে ক্ষোভে বাড়িতে থাকা কৃষিকার্যের কীটনাশক গোপনে পান করে গুরুতর অসুস্থ হয়। পরিবারের লোকজন বিষয়টি বুঝতে পেয়ে তাকে আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ভর্তির কিছুক্ষনের মধ্যে চিকিৎসকরা লাইজুকে মৃত ঘোষনা করে।

হাতীবান্ধা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) ওমর ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ঘটনাস্থলে অফিসার পাঠানো হয়েছে তদন্তে করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অপরদিকে ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলায় এসএসসি পরীক্ষায় ফেল করায় লিমা আক্তার (১৬) নামে এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

রবিবার বিকালে আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিস্ট ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মংলা।

লিমা হরিপুর উপজেলার ৫নং হরিপুর সদর ইউনিয়নের তিনুয়া গ্রামের জহিরুল ইসলামের মেয়ে এবং হরিপুর দ্বিমুখী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী ছিলেন। দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের অধিনে হরিপুর দ্বিমুখী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে লিমা এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছিলেন।

লিমার বাবা জহিরুল ইসলাম বলেন, ধান কর্তন করার জন্য রবিবার সকালে আমিসহ আমার স্ত্রী মাঠে যায়। এরপর দুপুর ১টার দিকে বাড়ি থেকে খবর আসে আমার মেয়ে লিমা গলায় ফাঁস অবস্থায় ঝুলে আছে। সঙ্গে সঙ্গে মাঠ থেকে বাসায় আসি। এরপর লিমার গলা থেকে ফঁাঁস খুলে হরিপুর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হলে হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার কবিরুল মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

হরিপুর থানার ওসি আমিরুজ্জামান জানান, কেউ এই বিষয়ে থানায় কোন অভিযোগ করেনি। তাই একটি ইউডি মামলা করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ