• বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০, ১১:০১ অপরাহ্ন |

পাটগ্রামে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

Red Chilli Saidpur

সিসি ডেস্ক, ২৫ জুন ।। লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার জগতবেড় ইউনিয়নের ভেরভেরিরহাট গ্রামের সীমান্তের ওপারে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে মিজানুর রহমান ওরফে মিজান (২০) নামের এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার জগতবেড় ইউনিয়নের ভেরভেরিরহাট সীমান্তে এ ঘটনা ঘটে। মিজানুর উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের মঙ্গলিবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা ও নাসিমুদ্দিনের ছেলে।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও থানা–পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বুধবার রাতে উপজেলার ভেরভেরিরহাট গ্রাম সীমান্তের ৮৬২ নম্বর মেইন পিলারের ৪ নম্বর উপপিলারের কাছ দিয়ে বাংলাদেশি গরু পারাপারকারীর (রাখাল) একটি দল ভারতের কোচবিহারের মাথাভাঙ্গা থানার সীমান্তের পাড়াসার গ্রামের গরু ব্যবসায়ীর কাছে গরু আনতে যায়। তারা গরু নিয়ে আজ ভোরে আবার একই সীমান্ত দিয়ে ফেরত আসার সময় কোচবিহার ১৪০ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের চুয়াঙ্গারকাটা বিএসএফ ক্যাম্পের টহলরত বিএসএফ সদস্যরা তাদের ধাওয়া করেন। এ সময় রাখাল দলের অন্য সদস্যরা পালিয়ে এলেও মিজানুর বিএসএফের টহল দলের সদস্যদের ছোড়া গুলিতে আহত হন। পরে সঙ্গে থাকা রাখাল দলের অন্য সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা অরূপ পাল বলেন, মাথার পেছনে গুলিবিদ্ধ অবস্থা আজ ভোররাত সাড়ে চারটার দিকে ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসা হয়। তবে গুলিবিদ্ধ ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার আগে পথেই তিনি মারা যান।

রংপুর-৬১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের সমশেরনগর বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার সুবেদার সুলতান মুন্সি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খোঁজখবর নিয়ে পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাবেন।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত জানান, মিজানুরের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সূত্র: প্রথম আলো


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ