• রবিবার, ০৯ অগাস্ট ২০২০, ০৩:০৪ পূর্বাহ্ন |

নীলফামারী বিআরডিবি’র ডিডি’র বিরুদ্ধে অভিযোগ

Red Chilli Saidpur

নীলফামারী, ২৯ জুলাই ।। অধিনস্ত তিন কর্মীর ইনক্রিমেন্ট ও শ্রান্তি বিনোদন ভাতা প্রদানের জন্য ৫০ হাজার টাকা ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড(বিআরডিবি) নীলফামারী উপ-পরিচালক আব্দুল হান্নানের বিরুদ্ধে।
এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের এ্যকাউন্টে মঙ্গলবার উপ-পরিচালকের দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন বিআরডিবি’র নীলফামারী সদর উপজেলায় কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি’র সভাপতি এটিএম খালেকুজ্জামান খালেক।
খালেকুজ্জামান খালেক অভিযোগ করে বলেন, সদর উপজেলা পল্লী উন্নয়ন বোর্ডের মহিলা উন্নয়ন কর্মসুচীর তিন মাঠ কর্মীর ইনক্রিমেন্ট ও শ্রান্তি বিনোদন ভাতা চার বছর আটকিয়ে রেখেছেন উপ-পরিচালক। ওই কর্মীরা বার বার তার কাছে ধর্ণা দিয়েও সুফল পান নি।
বিষয়টি আমাকে জানানোর পর গেল বৃহস্পতিবার আমি এবং ওই তিনকর্মীকে সাথে নিয়ে উপ-পরিচালকের সাথে দেখা করি। এ সময় তিনি আমার কাছে ৫০হাজার টাকা ঘুষ দাবী করেন এবং সেখান থেকে আমাকে ১০ হাজার টাকা ভাগ দেবার প্রস্তাব দেন।
আমি প্রতিবাদ করলে উপজেলা অফিসারের মাধ্যমে ভুক্তভোগী তিন কর্মীর বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে হুমকী দেন ডিডি।
এ রকম দুর্নীতি বাজ কর্মকর্তার দ্রুত অপসারণসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানাচ্ছি আমি।
তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে ওই তিনকর্মী বছরে এক হাজার করে ইনক্রিমেন্ট এবং ১৬হাজার করে শ্রান্তি বিনোদনের টাকা পাওয়ার কথা কিন্তু উপ-পরিচালক তাদের এ ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেন নি।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক মাঠকর্মী ইনক্রিমেন্ট ও শ্রান্তি বিনোদন ভাতা না পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন।
তবে একই দিন (বৃহস্পতিবার) উপ-পরিচালকের কার্যালয়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেও বলে ফেসবুকে লিখেন খালেকুজ্জামান খালেক।
এদিকে উপ-পরিচালক আব্দুল হানান্ন ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার সমন্ধে খোঁজ নিয়ে দ্যাখেন। কোন কর্মকর্তা বা কর্মচারী অপবাদ দিতে পারবে না, আমার বিশ্বাস।
তবে তিন কর্মীর ইনক্রিমেন্ট ও শ্রান্তি বিনোদন ভাতা না পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে ডিডি আব্দুল হান্নান বলেন তাদের মাঠের কাজ সন্তোষ জনক নয়। ব্যাংকে ঋণের টাকা পড়ে রয়েছে, তারা দিতে পারছে না। চাকুরীর শেষকালে এসে তারা দায়সারা ভাবে কাজ করছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আর্কাইভ