• রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন |

১২ ঘণ্টায় একই পরিবারে ৩ জনের মৃত্যু

সিসি ডেস্ক, ১৯ সেপ্টেম্বর ।। কুষ্টিয়ার মিরপুরে মাত্র ১২ ঘণ্টার ব্যবধানে মা-বাবা ও মেয়ের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। একই দিনে তিনজনের এমন মৃত্যুতে হতভম্ব এলাকাবাসী। এরই মধ্যে তিনজনেরই মরদেহ দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

মৃত‌্যুবরণকারীরা হচ্ছেন কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ধুবাইল ইউনিয়নের গোবিন্দগুনিয়া গ্রামের লালন মল্লিক (৭০), লালন মল্লিকের স্ত্রী আনজেরা খাতুন (৬৫) ও লালন মল্লিকের মেয়ে মক্কেল আলীর স্ত্রী আঙ্গুরী খাতুন (৪০) ।

স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার দিবাগত রাত পৌনে ১১টার দিকে বাড়িতে অসুস্থতায় মারা যান লালন মল্লিকের স্ত্রী আনজেরা খাতুন। এদিকে মায়ের মরদেহ দেখে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন মেয়ে আঙ্গুরী খাতুন। পরে স্বামীর বাড়ি গিয়ে এক পর্যায়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে বেলা ১১টার সময় মারা যান আঙ্গুরী খাতুন।

এদিকে বড় মেয়ে মিরপুর পৌর সভার নওয়াপাড়া এলাকায় স্বামীর বাড়িতে মারা যাওয়ার খবর শুনে নিজ বাড়িতেই বেলা সাড়ে ১১টায় মারা যান লালন মল্লিক। মাত্র ১২ ঘন্টার মধ্যে মা, মেয়ে ও বাবার এমন মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে এলাকায় ও নিহতের পরিবারে।

আজ শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টায় গোবিন্দগুনিয়া কবরস্থানে দাফন করা হয় লালন মল্লিকের স্ত্রী আনজেরা খাতুনকে, দুপুর ২টায় পৌরসভার নওয়াপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হয় তার মেয়ে আঙ্গুরী খাতুনকে এবং বিকেল ৫টায় গোবিন্দগুনিয়া কবরস্থানে দাফন করা লালন মল্লিককে।

ধুবাইল ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সাইফুল ইসলাম জানান, ‘এটা খুবই মর্মান্তিক একটা ঘটনা। দীর্ঘদিন ধরে হার্টের অসুখে ভুগছিলেন আনজেরা খাতুন। শুক্রবার রাতে মারা যান তিনি। সকাল ৯টায় তাকে আমরা দাফন করি। বেলা ১১টায় জানতে পারি, তার মেয়ে আঙ্গুরী খাতুন মারা গেছে। কিছুক্ষণ পরেই জানতে পারি যে, স্ত্রী ও মেয়ের শোকে নিজ বাড়িতে মারা গেছেন লালন মল্লিক।’


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ