• রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০৫:১৮ পূর্বাহ্ন |

সৈয়দপুরে ৮ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ চেস্টার অভিযোগে ইজিবাইক চালক গ্রেফতার

বিশেষ প্রতিনিধি: গার্মেন্টসকর্মীকে ধর্ষণের রেশ কাটতে না কাটতেই নীলফামারীর সৈয়দপুরে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের চেস্টায় আরেক অটোচালকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টাকালে একই বাড়ির ভাড়াটিয়া ওই চার্জার অটো চালকে হাতে নাতে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া এলাকাবাসী।

ঘটনাটি ঘটেছে ৩০ সেপ্টেম্বর বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের নয়াটোলা কলিমনগর এলাকায়। আটক যুবকের নাম মামুন ইসলাম (২১)। সে ঢাকার নারায়ণগঞ্জ এলাকার মোঃ নুর ইসলামের ছেলে। সে বর্তমান এ এলাকায় দীর্ঘদিন যাবত তার বড় ভাই অটো চার্জার ব্যবসায়ী সোহেলের সাথে ভাড়ায় থাকেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়, শহরের উল্লেখিত এলাকায় শেখ সালাউদ্দীন শেখের বাড়িতে ভাড়া থাকে মামুন। পাশের রুমে উত্তরা ইপিজেড কর্মী স্বামী পরিত্যক্তা মহিলাও তার মেয়েকে নিয়ে ভাড়া থাকেন। মেয়েটি স্থানীয় এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে। বুধবার সকালে মেয়েটির মা ইপিজেড এ চলে যায় এবং মেয়েটি একাই বাসায় অবস্থান করছিল। এমতাবস্থায় সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে প্রতিবেশী অটো চালক মামুন মেয়েটিকে একা পেয়ে ঘরে ঢুকে জাপটে ধরে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এসময় মেয়েটি আর্তচিৎকার করলে লোকজন বাড়ির আশেপাশে জড়ো হয়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে দরজা ভেঙ্গে দুইজনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। পরে মেয়েটির মা বাদি হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে।
সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসনাত খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ফোর্স পাঠিয়ে দিয়ে মেয়েকে উদ্ধারসহ ছেলেটিকে আটক করা হয়েছে। পরে মেয়েটির মায়ের ধর্ষণ চেষ্টার লিখিত অভিযোগ দেয়ায় গ্রেফতার আসামীকে আদালতের মাধ্যমে নীলফামারী জেলা হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। উল্লেখ্য গত শনিবার শহরের পাটোয়ারী পাড়ায় এক গামেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ চেষ্টা অভিযোগে এক অটোচালককে গ্রেফতার করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ