• বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ১০:৩১ পূর্বাহ্ন |

১৯ মাস পর ভারত থেকে চাল আমদানি শুরু

সিসি ডেস্ক ।। প্রায় ১৯ মাস পর দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আবারও ভারত থেকে চাল আমদানি শুরু হয়েছে। শনিবার বিকেল ৪টায় ভারত থেকে ১১২ মেট্রিকটন চাল বোঝাই তিনটি ট্রাক দেশে প্রবেশ করে। সরকারের অনুমতি পাওয়া নওগাঁর আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান সেসার্স জগদীশ চন্দ্র রায় এই চাল আমদানি করেন।

হিলি স্থলবন্দরের চাল আমদানিকারকরা জানান, দেশে চালের বাজারে দামের উর্দ্ধগতি ঠেকাতে সরকার কৃষি মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ভারত সহ বিভিন্ন দেশ থেকে বেসরকারিভাবে চাল আমদানি করার সিদ্ধান্ত নেয়। এর ফলে হিলিসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের আমদানিকারকরা অনুমতি পেয়ে প্রতিবেশী দেশ ভারত থেকে চাল আমদানির জন্য এলসি করেন। যার প্রেক্ষিতে শনিবার বিকেলে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে স্বর্ণা-৫ জাতের ১১২ মেট্রিকটন চালের প্রথম চালান দেশে আসে।

নওগাঁর আমদানিকারক মেসার্স জগদিশ চন্দ্র রায় প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি শ্রীপদ জানান, সরকারের বিভিন্ন শর্তাবলী অনুসরণ করে আমরা ভারত থেকে ১০ হাজার মেট্রিকটন চাল আমদানি করার অনুমতি পেয়েছি। শনিবার হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমাদের প্রথম চালানের ৬০০ মেট্রিক টনের মধ্যে ১১২ মেট্রিক টন চাল দেশে প্রবেশ করেছে। পুরোপুরি চাল আমদানি শুরু হলে বাজারে দাম কমে আসবে বলে মনে করেন তিনি।

এদিকে হিলি স্থলবন্দর আমদানি ও রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ জানান, ভারত থেকে প্রতি মেট্রিকটন চালের আমদানি মূল্য পড়ছে ৩৫৬ ডলার। তাতে প্রতি কেজি আমদানি করতে হচ্ছে ২৯-৩০ টাকায়। এর মধ্যে ৪ টাকা সরকারি রাজস্ব যোগ করলে প্রতি কেজিতে খরচ পড়ছে ৩৪ টাকার মতো। তিনি আরও জানান, এই বন্দর দিয়ে অন্যান্য আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানও চাল আমদানির জন্য এলসি করেছেন। তাদের চালও কয়েকদিনের মধ্যে বাজারে চলে আসবে।

এদিকে হিলি স্থলবন্দরের বেসরকারি অপারেটর পানামা হিলি পোর্টের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন মল্লিক জানান, ভারত থেকে শনিবার বিকেলে চাল বোঝাই তিনটি ট্রাক দেশে প্রবেশ করে। পরে বন্দরের পানামা ওয়্যারহাউজে সন্ধ্যার দিকে সেগুলো প্রবেশ করে। এখনও ভারতীয় ট্রাক থেকে চালগুলি খালাস করা হয়নি। কাস্টমসের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হলে রোববার খালাস হতে পারে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ