• বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১১:১৯ অপরাহ্ন |

পরিবারের হাতে তুলে দিল হারিয়ে যাওয়া মা ও মেয়েকে

এনামুল মবিন সবুজ ।। দিনাজপুর চিরিরবন্দর উপজেলার সেচ্ছাসেবী সংগঠন পাশে দাঁড়াও এর সহযোগিতায় বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে পাশে দাঁড়াও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি মোছাঃ হাসিনা বেগম(৪৫)ও ছোট মেয়ে মিলি (৫)কে তাদের পরিবারের কাছে তুলে দেয়।
গত সোমবার(১৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় চিরিরবন্দর উপজেলার রানীরবন্দর বাজারে হাসিনা বেগম ও তার ছোট মেয়ে মিলিকে হতাশাগ্রস্থ ভাবে ঘুরাফেরা করতে দেখে স্থানীয় মানুষজন তাদের পরিচয় এবং ঠিকানা জানতে চাইলে তারা ঠিকানা বলতে পারছিলেন না।পরে স্থানীয় মেম্বর মোঃ মানিক হোসেনের জিম্মায় তাদের তুলে দেয় হয়। স্থানীয় মেম্বর তাৎক্ষণিক চিরিরবন্দর উপজেলার সেচ্ছাসেবী সংগঠন “পাশে দাঁড়াও” এর উপদেষ্টা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ লায়লা বানুকে এই বিষয়টি জানায়।ভাইস চেয়ারম্যান সেচ্ছাসেবী সংগঠন “পাশে দাঁড়াও” এর আহব্বায়ক মাহাফুজুল ইসলাম আসাদ কে জানালে তিনি এসে হাসিনা বেগমের সঙ্গে কথা বলেন এবং তিনি তার নিজস্ব ফেসবুক আইডিতে পরিবারের সন্ধান চেয়ে একটি লাইভ করেন। লাইভ টি যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হলে লাইভ এর ১২ ঘন্টার মধ্যে ঘোড়াঘাট উপজেলার ৩নং সিংড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মন্ডল এর নজরে আসে এবং তিনি হাসিনা বেগম কে চিনতে পারেন। তাৎক্ষণিক তিনি হাসিনার পরিবারের সঙ্গে কথা বলে “পাশে দাঁড়াও” এর উপদেষ্টা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ লায়লা বানুর সঙ্গে যোগাযোগ করেন।
বৃহস্পতিবার দুপুরে দিকে দিনাজপুর জেলা জজ আদালত চত্বরের সামনে হাসিনা বেগম ও তার মেয়েকে ঘোড়াঘাট উপজেলার চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মন্ডল এর নিকট আনুষ্ঠানিক ভাবে তাদের হস্তান্তর করা হয়। এসময় পাশে দাঁড়াও এর প্রধান উপদেষ্টা চিরিরবন্দর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লায়লা বানু, আহব্বায়ক সাংবাদিক মাহাফুজুল ইসলাম আসাদ, কেন্দ্রীয় সদস্য গোলাম মোস্তফা নীরবসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।
দিনাজপুর চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ আয়েশা সিদ্দিকার পক্ষ থেকে হাসিনা বেগমকে কম্বল ও মিলিকে চার সেট কাপড় এবং “পাশে দাঁড়াও” সংগঠনের পক্ষ থেকে হাসিনা বেগমকে শাড়ী, মিলি কে কাপড়,শুকনা খাবার, নগদ কিছু অর্থ তুলে দেন “পাশে দাঁড়াও” এর প্রধান উপদেষ্টা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ লায়লা বানু।
“পাশে দাঁড়াও” সংগঠনের আহব্বায়ক মোঃ মাহাফুজুল ইসলাম আসাদ বলেন যে হাসিনা ও তার মেয়েকে পরিবারের কাছে ফিরে দিতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত ও গর্বিত। আমাদের পাশে দাঁড়াও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সব সময় মানুষের পাশে থাকবে।
 ৩নং সিংড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মন্ডল বলেন, হাসিনা বেগমে গত সোমবার সকালে মেয়ের বাড়ী জয়পুর হাট যাওয়ার উদ্দেশ্যে বের হলে হাকিমপুর হিলি স্টেশন থেকে ভুল বসতো সৈয়দপুর গামী ট্রেনে চড়ে বসেন। হাসিনার মাথায় সামান্য সমস্যা আছে। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “পাশে দাঁড়াও” এর চেষ্টায় তার পরিবারের সন্ধান পেয়েছে। তিনি পাশে দাঁড়াও টিম এর সকল স্বেচ্ছাসেবীদের ধন্যবাদ জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ

error: Content is protected !!