• সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৯:৫১ পূর্বাহ্ন |

জাতীয় পার্টি কোনো দলের সঙ্গে জোটবদ্ধ নেই

সিসি নিউজ ডেস্ক ।। জাতীয় পার্টি এখন আর কোনো দলের সঙ্গে জোটবদ্ধ নেই বলে জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের। বৃহস্পতিবার রাজধানীর বনানীতে দলটির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে যৌথ সভায় এ কথা বলেন তিনি।

এসময় জাতীয় পার্টি কারও দয়া-ভিক্ষা নয়, সম্মানের জন্য রাজনীতি করছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতা কাদের বলেন, জাতীয় পার্টি মহাজোটে নেই, জাতীয় পার্টি কোনো জোটেই নেই। জাতীয় পার্টি আওয়ামী লীগ বা বিএনপির বি-টিম নয়। নির্বাচনের সময় কিছু আসনে সমঝোতা হয়েছে, তবে বেশিরভাগ আসনেই জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা শেষ সময় পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠে লড়াই করেছেন। জাতীয় পার্টি নিজস্ব রাজনীতি নিয়ে মাঠে আছে। নিজস্ব স্বকীয়তা নিয়ে রাজনীতির মাঠে এগিয়ে যাচ্ছে জাতীয় পার্টি।

তিনি বলেন, দেশ ও মানুষের অধিকারের প্রশ্নে জাতীয় পার্টি প্রধান বিরোধী দলের ভূমিকায় কখনোই আপস করছে না। জাতীয় পার্টি কারও দয়া বা ভিক্ষার রাজনীতি করে না। কারো করুণা নয়, সম্মানের জন্য রাজনীতি করছে জাতীয় পার্টি।

তিনি আরো বলেন, ১৯৯১ সালের পর থেকে দেশে সাংবিধানিকভাবেই একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। এতে আনুষ্ঠানিকভাবেই দেশে বৈষম্য সৃষ্টি হয়েছে। যারাই সরকার গঠন করে তারা আইনের ঊর্ধ্বে থেকে দুর্নীতি ও লুটপাটে জড়িত। উপজেলা পর্যায়ের নেতারাও বিদেশে হাজার কোটি টাকা পাচার করছে। পেশি শক্তি, কালো টাকা আর প্রশাসনকে কাজে লাগিয়ে কলুষিত করছে নির্বাচন ব্যবস্থা। একটি দলের প্রার্থীরাই নির্বাচনে জিতছে, তাই রাজনীতির মাঠে অন্য দলগুলোর টিকে থাকাই দুরূহ হয়ে পড়েছে।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, রাষ্ট্রক্ষমতায় না থাকলে রাজনৈতিক দলগুলো দুর্বল হতে থাকে। আওয়ামী লীগ ১৯৯৬ সালে আমাদের সমর্থন নিয়ে সরকার গঠন করেছে। তার আগে আওয়ামী লীগ দুর্বল থাকলেও এখন রাষ্ট্রক্ষমতায় থেকে সুপার পাওয়ার হয়ে গেছে। বিএনপিও অনেক দিন রাষ্ট্র ক্ষমতার বাইরে থেকে অনেকটাই দূর্বল হয়ে পড়েছে। কিন্তু জাতীয় পার্টি আরও বেশি সময় পর্যন্ত রাষ্ট্রক্ষমতার বাইরে থাকার কারণে দূর্বল হয়েছে। তাই এখনই রাজনীতির মাঠে জাতীয় পার্টি ঘুরে দাঁড়াবে।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের নির্বাচনে জাতীয় পার্টি আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটে ভিড়লেও নানা বিষয় নিয়ে অসন্তোষ দলটির বরাবরই ছিলো। তারপরও বিএনপির বর্জনের মধ্যে অনুষ্ঠিত দশম সংসদ নির্বাচনে আসন সমঝোতা করেই অংশ নিয়েছিলো জাতীয় পার্টি। পরে সরকারের অংশ নেওয়ার পাশাপাশি সংসদে প্রধান বিরোধী দলের আসনও নিয়েছিলো। দলের ভেতরে ও বাইরে এ নিয়ে সমালোচনায় ছিল জাতীয় পার্টি।

একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে এককভাবে ভোট করার ঘোষণা দিয়েছিলেন দলটির প্রয়াত চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ। কিন্তু বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেওয়ার পর মহাজোটেই থেকে যায় তারা, যদিও আসন সংখ্যা নিয়ে অসন্তোষ ছিলো তাদের।

সংসদে ২৬ জন সদস্য নিয়ে বিরোধী দলের আসনে রয়েছে জাপা। তবে বর্তমান সংসদে বিএনপির সংসদ সদস্যরা তাদের বিরোধী দল হিসেবে মেনে নিতে নারাজ।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ

error: Content is protected !!