• বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:২৭ অপরাহ্ন |

গতিতে ইতিহাস গড়ার প্রত্যয়ে লড়বে বাংলাদেশ

সিসি নিউজ ডেস্ক ।। ঘরবন্দি জীবনে প্রথমে হাঁসফাঁস অবস্থা। ধীরে ধীরে ছবির মতো সুন্দর দেশ নিউ জিল্যান্ডের পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়া তামিমরা অবশেষে মাঠে নামছেন ইতিহাস গড়ার প্রত্যয়ে। অধিনায়ক থেকে শুরু করে কোচ সবার কণ্ঠেই ছিল এক সুর; লিখতে চান নতুন ইতিহাস।

শনিবার (২০ মার্চ) বাংলাদেশ সময় ভোর চারটায় ডানেডিনের ইউনিভার্সিটি ওভাল মাঠে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে কিউইদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। খেলাটি সরাসরি দেখা যাবে বিটিভি, টি স্পোর্টস ও গাজী টিভিতে। অনলাইনে দেখা যাবে র‍্যাবিটহোলে।

সাকিব আল হাসানকে ছাড়া নিউ জিল্যান্ডের মাটিতে লড়বে বাংলাদেশ। সাকিবের না থাকা দলের জন্য ক্ষতি হলেও অভিজ্ঞতা আর তারুণ্যের মিশেলে গড়া দলকে নিয়ে অধিনায়ক তামিম ইকবালের কণ্ঠে ছিল ইতিহাস গড়ার প্রত্যয়। দেশ ছাড়ার আগেও বলেছেন, নিউ জিল্যান্ডে গিয়েও। এখন পর্যন্ত নিজেদের ইতিহাসে কিইউদের মাটিতে কোনো ম্যাচেই জেতেনি। এবার সেই আক্ষেপ ঘোচাতে চান।

‘নিউজিল্যান্ডে আমাদের ভালো রেকর্ড নেই। এবার আমাদের সামনে বড় সুযোগ রয়েছে এটি পরিবর্তন করার। আমাদের দলে বেশ কয়েকজন তরুণ ক্রিকেটার আছে। তাদের নিয়ে রোমাঞ্চিত’ শুক্রবার ডানেডিনের দৃষ্টিনন্দন সিগন্যাল হিলে সিরিজের ট্রফি উন্মোচন অনুষ্ঠানে এভাবেই বলেন তামিম।

নিউ জিল্যান্ড ওয়ানডে সিরিজে পাচ্ছে না নিয়মিত অধিনায়ক, দলের রান মেশিন কেন উইলিয়ামসনকে। প্রথম ওয়ানডেতে নেই অভিজ্ঞ রস টেলর। এই ম্যাচে অভিষেক হতে পারে দুই থেকে তিন কিউই ক্রিকেটারের। উইলিয়ামসন-টেলর না থাকা নিশ্চয় বাংলাদেশ শিবিরে এনে দিয়েছে বড় স্বস্তি।

ইতিহাস গড়তে চাওয়া কাপ্তান তামিমের জন্য এই সফরটাও ঐতিহাসিক। অধিনায়ক হিসেবে তার প্রথম বিদেশ সফর। তার সবচেয়ে বড় শক্তি দলের অভিজ্ঞতা আর তারুণ্যের মিশেলে গড়া পেস আক্রমণ। বাংলাদেশ স্কোয়াডে ৬ জন জেনুইন পেসারসহ আছেন একজন পেস অলরাউন্ডার। মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, আল আমিন হোসেন, শরিফুল ইসলাম, হাসান মাহমুদের মত ৬ জন জেনুইন (নিখুঁত) পেসারের সঙ্গে আছেন অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

তাদের নিয়েই তামিমের ইতিহাস গড়ার স্বপ্ন। কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর কণ্ঠেও ছিল পেসারদের প্রশংসা। তামিম বলেন, ‘বিশেষ করে আমাদের এবার নিখুঁত পেস বোলিং অ্যাটাক রয়েছে। আমি মুখিয়ে আছি, তারা কেমন পারফরম্যান্স করে, তা দেখার জন্য। আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ হলো বোলিং বিভাগ। আমি আসলে নতুন পেসারদের নিয়ে বেশ আশাবাদী। তারা কঠোর পরিশ্রম করছে। নেটে বলেন, প্রস্তুতিতে বলেন, ওরা ভালো বল করেছে। আমি খুব আশাবাদী, ওরা ভালো করবে।’

তামিম আগেই বলে দিয়েছেন দলে অবশ্যই তিনজন জেনুইন পেসার থাকবে, সঙ্গে থাকবেন একজন অলরাউন্ডার। তবে অধিনায়ক তামিমের চাওয়া নিউ জিল্যান্ডের সবুজ পিচে পাঁচ পেসার। অর্থ্যাৎ একজন পেস অলরাউন্ডারসহ বাংলাদেশ চার পেসার নিয়ে মাঠে নামছে এটা এক প্রকার নিশ্চিত।

কেমন হতে পারে একাদশ? ওপেনিংয়ে তামিম-লিটন। সৌম্য সরকারকে ওপরে খেলানোর কথা থাকলেও সম্ভাবনা কম। তিনে নাজমুল হোসেন শান্তর ওপরই ভরসা টিম ম্যানেজম্যান্টের। প্রস্তুতি ম্যাচে অপরাজিত হাফসেঞ্চুরি করা মোহাম্মদ মিথুনকে দেখা যেতে পারে চারে। পাঁচে মিস্টার ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহীম। এরপর মাহমুদউল্লাহ ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। একমাত্র স্পিনার হিসেবে দেখা যেতে পারে মেহেদি হাসান মিরাজকে। আর পেস আক্রমণে মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেনের সঙ্গে দেখা যেতে পারে তাসকিন আহমেদ কিংবা হাসান মাহমুদকে।

এদিকে উইলিয়ামসনের অবর্তমানে নিউ জিল্যান্ডের নেতৃত্ব দেবেন টম ল্যাথাম। ২০১৪ সালের অক্টোবরের পর প্রথমবার কেন উইলিয়ামসন ও রস টেলরের কাউকেই পাচ্ছে না নিউ জিল্যান্ড। ইনজুরির কারণে নেই কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ও লকি ফার্গুসন। কিউইরা সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছে গত বছরের মার্চে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। ২০১৯ বিশ্বকাপ থেকে এই পর্যন্ত মাত্র ৪টি ওয়ানডে খেলছে তারা।

অভিষেক হতে পারে ডেভন কনওয়ে ও উইল ইয়াংয়ের। এই দুজন তরুণসহ দল নিয়ে দারুণ আত্মবিশাসী ল্যাথাম। ‘এই দলের জন্য এটা সুবর্ণ একটা সুযোগ। কিছু নতুন মুখ নিয়ে ভিন্ন একটা দল এটা। এই বছর আমরা সত্যিই ভালো ক্রিকেট খেলেছি, সাদা আর লাল বলে। আশা করি এটা চলতে থাকবে।’

এই ম্যাচের মধ্য দিয়ে ল্যাথাম তার শততম ম্যাচ খেলতে নামবেন। রোমাঞ্চিত কিউই অধিনায়ক বলেন ‘আমার মনে আছে প্রথম ওয়ানডে এখানেই খেলেছিলাম। প্রথম আর শততম ম্যাচটি এখানে খেলতে পারা দারুণ ব্যাপার। ওই দিন পরিবার ও বন্ধুরা আমার খেলা দেখতে ছুটে এসেছিল এবং এই সপ্তাহেও তারা থাকবে।’ উৎস: রাইজিং বিডি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ