• মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৪৭ পূর্বাহ্ন |

ভারতীয় বৃত্তি পাচ্ছেন ২ হাজার শিক্ষার্থী

সিসি নিউজ ডেস্ক ।। বাংলাদেশের স্বাধীনতায় অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ প্রত্যেক বছর মুক্তিযোদ্ধা উত্তরাধিকারীদের বৃত্তি প্রদান করে ভারত। এ বছর দুই হাজার শিক্ষার্থী এ বৃত্তি পাচ্ছেন। এর মধ্যে উচ্চ মাধ্যমিকে এক হাজার এবং স্নাতক পর্যায়ের এক হাজার শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদানের জন্য নির্বাচন করা হয়েছে।

বুধবার (৩১ মার্চ) ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, এ বছর উচ্চ মাধ্যমিক এবং স্নাতক পর্যায়ের এক হাজার করে মোট দুই হাজার শিক্ষার্থী এ প্রকল্পের আওতায় বৃত্তির জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। এ বছর থেকে ডিজিটাল ইন্ডিয়া উদ্যোগের সঙ্গে ডিরেক্ট ব্যাংক ট্রান্সফার (ডিবিটি) পদ্ধতির মাধ্যমে শিক্ষার্থীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে বৃত্তির সমপরিমাণ অর্থ সরাসরি জমা হবে। আজ থেকে স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার গুলশান শাখা সরাসরি বৃত্তির পরিমাণ টাকা হস্তান্তর শুরু করবে।

ভারত সরকার মুক্তিযোদ্ধা উত্তরাধিকারীদের জন্য মুক্তিযোদ্ধা বৃত্তি প্রকল্প শুরু করে ২০০৬ সালে। প্রাথমিকভাবে উচ্চ মাধ্যমিক এবং স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়েছিল। স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের প্রতি বছর ২৪ হাজার টাকা করে চার বছর এবং উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের ১০ হাজার টাকা করে দুই বছর বৃত্তি হিসেবে দেওয়া হয়েছিল।

ভারতীয় হাইকমিশন জানায়, ২০১৭ সালের এপ্রিলে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরকালে নতুন বৃত্তি প্রকল্প ঘোষণা করা হয়। নতুন বৃত্তি প্রকল্পের অধীনে পরবর্তী পাঁচ বছরে ১০ হাজার বাংলাদেশি শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হবে। মুক্তিযোদ্ধা উত্তরাধিকারী উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের এককালীন ২০ হাজার টাকা এবং স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের এককালীন ৫০ হাজার টাকা করে বৃত্তি দেওয়া হবে। উভয় প্রকল্পের জন্য ভারত সরকার ৩৫ কোটি টাকা মঞ্জুর করেছে। এখন পর্যন্ত ১৭ হাজার ৮২ জন শিক্ষার্থী এই প্রকল্পের আওতায় উপকৃত হয়েছেন। এ লক্ষ্যে ৩৭ দশমিক ৯৯ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ

error: Content is protected !!