• শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১১:২১ অপরাহ্ন |

গরু রেখে ট্রাকে ফিরছে উত্তরাঞ্চলের মানুষ

সিসি নিউজ ডেস্ক ।। রাত পোহালেই ঈদ। স্বজনদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে রাজধানী ঢাকা ছাড়ছেন উত্তরাঞ্চলের মানুষ। এতে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়কে যানবাহন ও যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। বাস, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেলের পাশাপাশি কম খরচে ট্রাকে করে ঈদ উদযাপন করতে বাড়ি ফিরছেন নিম্ন আয়ের মানুষেরা।

মঙ্গলবার (২০ জুলাই) ভোর থেকেই বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমপাড় থেকে হাটিকুমরুল গোলচত্বর পর্যন্ত মহাসড়কে অন্যান্য যানবাহনের পাশাপাশি ট্রাকে করে যাত্রীদের ফিরতে দেখা গেছে। ট্রাকচালকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায় এসব ট্রাকের বেশিরভাগই কোরবানির পশু নিয়ে রাজধানী ও আশপাশের এলাকায় গিয়েছিল। ফিরতি পথে যাত্রী নিয়ে আসছে। পুরুষের পাশাপাশি নারী ও শিশুরাও হয়েছেন এসব ট্রাকের যাত্রী।

ঘরমুখো মানুষের চাপে বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কে যানবাহনের দীর্ঘসারি দেখা গেছে। যানবাহনের চাপে মহাসড়কে সৃষ্টি হয়েছে যানজট। যানজটের ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রী ও চালকরা। অনেকে যানজটে আটকে থেকে বিরক্ত হয়ে ট্রাক, বাস থেকে নেমে ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল ও সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে গ্রামে ছুটছেন।

পরিবার নিয়ে ঢাকা থেকে পাবনাগামী ট্রাকে চড়েছেন আব্দুর রউফ। তিনি জানান, রাজধানী ঢাকা থেকে স্বজনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে পরিবার নিয়ে পাবনায় যাচ্ছি। বাসের তুলনায় ট্রাকে ভাড়া কম হওয়ায় তিনি পরিবারসহ ট্রাকে উঠেছেন। কিন্তু যানজটের কারণে খুব ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। ভোগান্তি সহ্য করেও পরিবারের সঙ্গে স্বজনদের সঙ্গে ঈদ করবো এটাই আনন্দের।

আরেক ট্রাকযাত্রী ইউনুস আলী বলেন, ঢাকায় স্বল্প বেতনের চাকরি করি। বাসে সিট পাওয়া খুবই অসাধ্য বিষয়। অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে প্রাইভেটকার অথবা মাইক্রোবাসে যাওয়ার মতো সামর্থ্যও নেই। তাই কম ভাড়া দিয়ে ঝুঁকি নিয়েই ট্রাকে করে স্বজনদের সঙ্গে ঈদ করতে গ্রামের বাড়ি রংপুর যাচ্ছি।দিনাজপুরগামী ট্রাক যাত্রী রফিক, সোবাহান, রুবেল সুমন বলেন, বাসের ভাড়া বেশি, আমরা সামান্য বেতনের চাকরি করি। তাই কষ্ট করে ট্রাকে বাড়ি ফিরছি। স্বজনদের সঙ্গে ঈদ করতে অনেক ভোগান্তি সহ্য করতে হচ্ছে। মহাসড়কে যানবাহনের ধীরগতি এবং যানজটের কারণে আমাদের বেশি ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। আমাদের মতো নিম্ন আয়ের আরও অনেক মানুষ কম খরচে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই ট্রাকে করে বাড়ি ফিরছেন।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি শাহজাহান আলী বলেন, মহাসড়কে ঈদে ঘরমুখো মানুষের উপচে পড়া ভিড়। বাসে সিট না পেয়ে অনেকে ট্রাকে করে বাড়ি যাচ্ছেন।  যানবাহনের চাপও অনেক বেশি। তাই বিভিন্ন স্থানে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। বিশেষ করে ঝুঁকিপূর্ণ নলকা সেতুর কারণে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। যানজট নিরসনে পুলিশ মহাসড়কে অবস্থান করছে। তবে ঈদে ঘরমুখো মানুষকে নির্বিঘ্নে বাড়ি ফিরতে সহায়তা করতে মহাসড়কে তৎপর রয়েছে হাইওয়ে পুলিশ। উৎস: বাংলা ট্রিবিউন


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ

error: Content is protected !!