• শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ১০:১৩ অপরাহ্ন |

ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত হয়ে সৈয়দপুরে সর্বোত্র পশু কোরবানি

আমিরুল হক ।। মুসলিম সম্প্রদায়ের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা। ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর এই পবিত্র দিনে পশু কোরবানির মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি খুঁজছেন মুসলমানরা। এছাড়া ঘরে ঘরে আনন্দের বন্যা বয়ে যাচ্ছে। সারাদেশের মত নীলফামারীর সৈয়দপুরেও বুধবার (২১ জুলাই) সকালে নামাজ আদায় পর থেকে কোরবানির পশু জবাই শুরু হয়।

এ পশু জবাইয়ের মাধ্যমে মনের পশুকে কোরবানি দিয়ে আল্লাহর সন্তুষ্টি আদায়ের চেষ্টা করেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। পাড়া-মহল্লাহ আর অলিগলি থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্থানে পশু কোরবানির পর মাংস কাটায় ব্যাস্ত দিন পার করেছে সবাই। করোনার কারণে ঘরবন্দি শিশুরা এদিন কোরবানির পশু জবাই দেখতে বাইরে আসে। সকাল থেকে সৈয়দপুরে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

নীলফামারী জেলা কার, মাইক্রোবাস ও পিকআপ মালিক সমিতির সভাপতি এরশাদ হোসেন পাপ্পু বলেন, ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে সরকার একসপ্তাহের জন্য বিধিনিষেধ শিথিল করেছে। ঘরে ঘরে ঈদ আনন্দ উপভোগ করছে মানুষ। কিন্তু সামনে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি কী দাঁড়ায়, সেই শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

সৈয়দপুর রেলওয়ে স্টেশন মসজিদের খতিব মাওলানা সাইদুল ইসলাম জানান, লোভ, হিংসা ত্যাগ করে, নিজের ভেতরের পশুত্বকে কোরবানি করার ভেতর দিয়ে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের চেষ্টা করাই এর মূল তাৎপর্য। হযরত ইব্রাহিম (আ.) যেমন করে মহান আল্লাহর নির্দেশে তাঁর সন্তুষ্টি লাভের জন্য পুত্র হযরত ইসমাইল (আ.) কে কোরবানি করতে উদ্যত হয়েছিলেন, সেই ত্যাগকে স্মরণ করে বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায় আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনে পশু কোরবানি করতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ

error: Content is protected !!