• মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১২:০৬ পূর্বাহ্ন |

আ.লীগের টাকা পাচারকারীদের চিহ্নিত করার আহ্বান কাদেরের

সিসি নিউজ ডেস্ক ।। আওয়ামী লীগ করে যারা কোটি কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে, তাদের চিহ্নিত করার আহ্বান জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, চিহ্নিত সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, মাদক কারবারি, অবৈধ অর্থ পাচারকারীদের কোনোভাবেই দলে রাখা যাবে না।

ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধন করে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। ঢাকায় জাতীয় সংসদ এলাকার বাসভবন থেকে এই সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়েছিলেন তিনি।

উল্লেখ্য, ফরিদপুরে আলোচিত ২ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচারের মামলায় এরই মধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সাবেক এলজিআরডিমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ছোট ভাই খন্দকার মোহতেশাম হোসেন বাবরকে। তিনি জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির সহসভাপতি। একই মামলায় এর আগে গ্রেপ্তার হন ফরিদপুর শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন বরকত ও তাঁর ছোট ভাই ইমতিয়াজ হাসান রুবেল। এই মামলায় আরও পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ত্যাগী নেতা-কর্মীদের দলে মূল্যায়ন করতে হবে—মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সুবিধাভোগীদের দুঃসময়ে হাজার পাওয়ারের বাতি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না। দেশের গণতন্ত্র, মুক্তিযুদ্ধ তথা বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে।

নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, দেশের চলমান উন্নয়ন-অর্জন ধরে রাখতে হলে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ভবিষ্যতেও আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা রাখতে হবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে। আগামী জাতীয় নির্বাচন ও আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন সামনে রেখে এখন থেকেই দলকে সুসংগঠিত ও স্মার্ট হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

বিএনপির শাসনামলে দেশে ২৪ ঘণ্টাই লোডশেডিং ছিল দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনা সারা দেশ আলোয় আলোকিত করেছেন। বিএনপির নেতারা এখন চোখে ঠুলি পরেছেন।

বিএনপির মহাসচিবকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘হুংকার দিয়ে লাভ নেই। দেশের জনগণকে দেখাবার মতো আপনাদের এমন কোনো উন্নয়ন নেই, তাই সরকারের পদত্যাগ দাবি না করে নিজেরা পদত্যাগ করুন।’

ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহার সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্ল্যাহ। এ ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান, আবদুর রাজ্জাক, শাজাহান খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, এস এম কামাল হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ