• সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ১১:০৩ অপরাহ্ন |

পোষ্য কোঠায় সনদ না দেখালে প্রার্থীতা বাতিল: ডিপিই

সিসি নিউজ ডেস্ক ।। সরকারি প্রাথমিকে যেসব প্রার্থী পোষ্য কোঠায় আবেদন করেছিলেন ও লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদেরকে সনদ দেখানোর নির্দেশনা দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই)। এই সনদ দেখাতে ব্যর্থ হলে তাদের প্রার্থিতা বাতিল করা হবে। শুধু তাই নয় সনদ ভুয়া হলে শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বুধবার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই) এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে। এই আদেশে স্বাক্ষর করেন মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম।

এতে বলা হয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা, ২০১৯ অনুযায়ী পোষ্য অর্থ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োজিত আছেন বা ছিলেন এমন শিক্ষকের অবিবাহিত সন্তান, যিনি উক্ত শিক্ষকের উপর সম্পূর্ণরুপে নির্ভরশীল আছেন বা তিনি জীবিত থাকলে বা চাকরিতে থাকলে সম্পূর্ণরূপে নির্ভরশীল থাকতেন এবং উক্ত শিক্ষকের বিধবা স্ত্রী বা বিপত্নীক স্বামী বা তালাকপ্রাপ্ত কন্যা যিনি ওই শিক্ষকের উপর সম্পূর্ণ নির্ভরশীল ছিলেন বা, ক্ষেত্রমতে, তিনি জীবিত থাকিলে অনুরুপভাবে নির্ভরশীল থাকিতন।” নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক মৌখিক পরীক্ষার সময় পোষ্য প্রার্থীদেরকে ২৫ অক্টোবর ২০২০ তারিখ পর্যন্ত তিনি পোষ্য ছিলেন মর্মে সংশ্লিষ্ট উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসার কর্তৃক প্রদত্ত সনদ দাখিল করতে হবে।

কোন প্রার্থী উল্লিখিত সনদ দাখিল করতে ব্যর্থ হলে তার প্রার্থিতা বাতিল বলে গণ্য হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সংশ্লিষ্ট উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসার পোষ্য সনদ প্রদানকালে সরেজমিনে যাচাই/তদন্ত করবেন এবং সনদপত্রটি সংশ্লিষ্ট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কর্তৃক প্রতিস্বাক্ষরিত হতে হবে। নিয়োগ বিধিতে উল্লিখিত। লংঘন করে কোন কর্মকর্তা পোষা সনদপত্র স্বাক্ষর বা প্রতিস্বাক্ষর করলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ব্যক্তিগতভাবে দায়ী থাকবেন এবং তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এছাড়া কোন প্রার্থী ভুয়া পোষ্য সনদ দাখিল করলে তার প্রার্থীতা সরাসরি বাতিল করা হবে এবং সংশ্লিষ্ট শিক্ষক কর্মরত থাকলে তার বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ