• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১২:১১ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট খোলা বায়েজিদ আটক নীলফামারী জেলা শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলামের শ্বশুড়ের ইন্তেকাল সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের গ্রন্থাগারের মূল্যবান বইপত্র গোপনে বিক্রি ফেনসিডিলসহ সেচ্ছাসেবক লীগের নেতা গ্রেপ্তার এ সেতু আমাদের অহংকার, আমাদের গর্ব: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ-ভারতে রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকবে ৮ দিন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের জন্য এক গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যেতে মানতে হবে যেসব নির্দেশনা সৈয়দপুরে বিস্কুট দেয়ার প্রলোভনে শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ গণমানুষের সমর্থনেই পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

নীলফামারীর খোকশাবাড়ী ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৯ প্রার্থী

সিসি নিউজ।। দীর্ঘ ১০ বছর পর নীলফামারী সদরের খোকসাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আগামী ১৫ জুন। ওই নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন মঙ্গলবার চেয়ারম্যান পদে নয় জন প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছেন। তাদের মধ্যে দলীয় মনোনয়নে দুইজন এবং সাতজন স্বতন্ত্র প্রার্থী।

দলীয় প্রার্থীরা হলেন, আওয়ামী লীগের প্রশান্ত রায়, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. নাইমুর রহমান। স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন, মো. মাসুদ রানা মাসুম, শশধর রায়, মো. তহিদুল ইসলাম, মো. মঞ্জুরুল ইসলাম, মো. মাসুদ রানা সাবদের, মো. আশাফউদ্দৌলা সিদ্দিকি, পঙ্কজ কুমার রায়। নয়টি ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে ৪১জন এবং সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ২০জন মনোনয়ন দাখিল করেছেন। ওই ইউনিয়নের ভোটার সংখ্যা ১৯ হাজার ৫৭৩জন।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আফতাব উজ্জামান বলেন, ‘সর্বশেষ ধাপে আগামী ১৫জুন খোকশাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষদিন ছিল। আগামী ১৯ মে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিন ২৬ মে এবং ২৭ মে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ রহমান বলেন, ‘ওই ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আমাদের কোন বিদ্রোহী প্রার্থী নেই। দুই জন মনোনয়ন চেয়েছেন, তাদের মধ্যে একজন পেয়েছেন।

সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, ইউনিয়নটিতে সর্বশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১১ সালের ৫ জুন। ২০১৬ সালের মধ্য সময়ে নির্বাচিত পরিষদের মেয়াদ শেষ হলেও ২০১৫ সালে খোকশাবাড়ী, ইটাখোলা, কুন্দপুকুর ও টুপামারী ইউনিয়নের কিছু অংশ নীলফামারী পৌরসভায় সংযুক্ত করে গেজেট প্রকাশ হয়। এর বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে একটি মামলা হলে পৌরসভাসহ ওই চার ইউনিয়নের পরবর্তী নির্বাচন স্থগিত থাকে। পরে সীমানা জটিলতা নিরসন হওয়ায় ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর টুপামারী, ২০২১ সালের ২৮ নভেম্বর নীলফামারী পৌরসভা, ২০২২ সালের ৭ ফেব্রুয়ারী ইটাখোলা ও কুন্দপুকুর ইউনিয়নের নির্বাচন সম্পন্ন হলেও সে সময়ে নির্বাচনী তফসীল থেকে বাদ পড়ে খোসকাবাড়ী ইউনিয়ন। সবশেষ নতুন নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার ও ইউনিয়নটির নির্বাচনী তফশিল ঘোষণা করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ