• শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন |

ফুলবাড়ীতে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি।। ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানির খবরে কমতে শুরু করেছে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী বাজারে দেশি পেঁয়াজের দাম। প্রকার ভেদে কয়েকদিনের ব্যবধানে পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম কেজিতে কমেছে ২ থেকে ৫ টাকা এবং খুচরা বাজার ৩ থেকে ৫ টাকা।
বৃহস্পতিবার সকালে ফুলবাড়ী পৌর বাজার ঘুরে দেখা গেছে, গত সপ্তাহ আগে পাইকারি বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা কেজিদরে। একই পেঁয়াজ খুচরা বাজার বিক্রি হয়েছিল ৪০থেকে ৪৫ টাকা কেজি দরে। বৃহস্পতিবার একই পেঁয়াজের দাম কমে গিয়ে পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে প্রকার ভেদে ৩০ টাকা থেকে ৩২ টাকা কেজি দরে। খুচরা বাজারে তা বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা কেজিদরে। পেঁয়াজের দাম কমে যাওয়ায় স্বস্তি ফিরছে সাধারণ ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের মাঝে।
বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা আনোয়ার হোসেন বলেন, পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। সপ্তাহ খানেক আগেও ৪০-৪৫ টাকা কেজিদরে কিনতে হয়েছে। আজ সেই পেঁয়াজ ৩৫ টাকায় পাওয়া গেল।
ফুলবাড়ী পৌর বাজারের খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতা শ্যামল চন্দ্র, মন্টু মিয়া ও শাহাজামাল বলেন, বাজারের পেঁয়াজ, রসুনসহ বেশ কয়েকটি নিত্যপণ্যের দাম আমদানি নির্ভর। ভারত থেকে পাইকারি ব্যবসায়িরা ওইসব পণ্য আনতে পারলে বাজার দর কম হয়,আর না আসলে বাজার চড়া হয়। বর্তমানে পেঁয়াজের আমদানি হওয়ায় দাম অনেক কমে গেছে। ক্রেতারাও তাদের চাহিদানুযায়ী পেঁয়াজ ক্রয় করছেন।
ফুলবাড়ী পৌর বাজারের পাইকারি পেঁয়াজ ব্যবসায়ী মিলন মিয়া, কালুকান্ত দত্ত ও আমজাদ হোসেন বলেন, ভারত থেকে হাকিমপুরের হিলিতে পেঁয়াজ আমদানি হওয়ার কথা শুনে কয়েকদিনে বাজারে পেঁয়াজের দাম কমে গেছে। আর এই আমদানির কথা শুনে বাহির থেকে ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ কিনতে আসা বন্ধ করে দিয়েছে। যার জন্য দেশি পেঁয়াজের দাম কমে গেছে। এ অবস্থা অব্যাহত থাকলে পেঁয়াজের দাম আরও কমে আসবে। ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি হতে থাকলে পবিত্র কোরবানির ঈদে পেঁয়াজের বাজার স্বাভাবিক থাকবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ